May 28, 2024, 7:29 pm

সংবাদ শিরোনাম
আদমদীঘির ধান শরিয়তপুরে উদ্ধার; গ্রেপ্তার-২ অবৈধভাবে চাঁদা উত্তোলনকালে রাজধানীর যাত্রাবাড়ী এলাকা হতে ০৬ জন পরিবহন চাঁদাবাজকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১০ মুন্সিগঞ্জ জেলার সিরাজদিখান এলাকা হতে গাঁজা ও বিদেশী পিস্তলসহ কুখ্যাত অস্ত্রধারী মাদক ব্যবসায়ী সাগর’কে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১০ মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বৈদ্যুতিক খুঁটির সাথে ধাক্কায় চালকের মৃত্যু ঘূর্ণিঝড় রেমাল এর প্রভাবে উপকুলের সতাধিক ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত কুড়িগ্রামে বেবী তরমুজের চাষে তিন মাসে আয় দেড় লাখ টাকা মাঝরাত্রে প্রবাসীর ঘরে ঢুকে স্ত্রীও মা কে ছুরি মেরে পালালো দুর্বৃত্তরা বগুড়ার শিবগঞ্জে জাতীয় অনলাইন প্রেসক্লাবের কমিটি গঠন: এমদাদুল আহবায়ক রবি সদস্য সচিব গাইবান্ধা প্রেসক্লাব’র কমিটি গঠিত প্রধানমন্ত্রী হস্তক্ষেপ কামনা, বাগাতি পাড়ার ভূমিহীন রাবেয়া বেগমের

কর্তৃপক্ষের উদাসীনতায় ছিনতাইকারী, চোর ও মাদকসেবীদের নিরাপদ স্থানে পরিনত রংপুর প্রধান ডাকঘর

কর্তৃপক্ষের উদাসীনতায় ছিনতাইকারী, চোর ও মাদকসেবীদের নিরাপদ স্থানে পরিনত রংপুর প্রধান ডাকঘর

রংপুর ব্যুরো

কর্র্তৃপক্ষের উদাসীনতার ও অসচেতনতার কারণে ছিনতাইকারী, চোর ও মাদকসেবীদের নিরাপদ স্থানে পরিনত হচ্ছে নগরীর কাচারী বাজার এলাকার রংপুর প্রধান ডাকঘর। প্রায় প্রতিদিনই ঘটছে টাকা ছিনতাই ও চিটিংবাজি। এত সাধারণ গ্রাহকরা প্রতারিত হচ্ছেন নীরবে। ডাকঘর কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা যায়, দিনে ২ থেকে ৩ কোটি টাকা লেনদেন হয়। অথচ বিপুল  টাকা লেনদেন  হলেও সেখানে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা নেই। সিসি ক্যামেরা আছে সেটি শুধু কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের পর্যবেক্ষনের জন্য। সেই সিসি ক্যামেরা অপারেটর  করার জন্য নাই আইটি বিশেষজ্ঞ কিংবা অপারেটর কর্তৃপক্ষের উদাসীনতা ও অবহেলার কারণে গত ৩ মাসের ব্যবধানে ৫টি ছিনতাই ও একাধিক চিটিংয়ের ঘটনা ঘটেছে। সম্প্রতি ১ লক্ষ টাকার চিটিংয়ের ঘটনায় তোলপাড় সৃষ্টি হলেও প্রধান ডাকঘরের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কোন টনক নড়েনি। বরং গা ছাড়া ভাব দেখা গেছে। রংপুর কোতয়ালী থানার অভিযোগে জানা যায়, গত ১০ অক্টোবর ২০১৭ নগরীর ১৭নং ওয়ার্ডের পূর্ব পাবর্তীপুর এলাকার মোছাঃ সুফিয়া বেগম রংপুর সেনানিবাস কর্তৃক জমি অধিগ্রহণকৃত ১ লক্ষ টাকা ট্রাষ্ট ব্যাংক থেকে উত্তোলন করে রংপুর প্রধান ডাকঘরে ফিক্স ডিপোজিট করার টাকা জমা দিলে ডাকঘরের কর্মকর্তা সঞ্চয়পত্র কেনার পরামর্শ দেন। সুফিয়া বেগম তাতে রাজী না হলেও পরের দিন ১১ অক্টোবর  ২০১৭ পূনরায় টাকা উত্তোলনের জন্য প্রধান ডাকঘর যান। প্রধান ডাকঘরের অফিসের যাবতীয় কাজ সম্পাদন হলে ডাকঘরের পোষ্টাল অপারেটর মিজানুর রহমান সুফিয়া বেগমকে টাকা না দিয়ে অসচেতনতাবশত অন্য অজ্ঞাত ব্যক্তির হাতে টাকা তুলে দেয়। পরে সুফিয়া বেগম পোষ্টাল অপারেটর মিজানুরের কাছে জানতে চাইলে তিনি রাগান্বিত হয়ে বলেন, কেন আপনার ছেলেকে তো টাকা দিয়েছি। সুফিয়া বেগম এই বিষয়ে তাৎক্ষনিক মৌখিকভাবে সেখানকার উর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে জানিয়ে কোন সুরাহা পায়নি। পরে সুফিয়া বেগম রংপুর কোতয়ালী থানায় গিয়ে অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগের প্রেক্ষিতে দায়িত্বরত এসআই ফেরদৌস ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলে সেখানকার ভিডিও ফুটেজটি দেখতে চান। কিন্তু কর্তৃপক্ষ ভিডিও ফুটেজের ব্যাপারে অপারেটর জানে না বলে এড়িয়ে যান। এদিকে সুফিয়া বেগম কয়েকদিন পরে লিখিত আকারে প্রধান ডাকঘরের পোষ্টমাষ্টার জোনারেল বরাবরে টাকা চিটিংয়ের ব্যাপারে আবেদন করেন। আবেদনের প্রেক্ষিতে সুফিয়া বেগম উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে গেলে তিনি ভয়ভীতি দেখান এবং বাড়াবাড়ি না করার পরামর্শ দেন। অভিযোগের ভিত্তিতে প্রতিবেদকরা প্রধান ডাকঘরের পোস্ট মাষ্টার জেনারেল এসএম হাসান এর নিকট এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি , প্রথমে দায়িত্ব এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। পরে ব্যর্থতা স্বীকার করে বলেন, ছিনতাইকারী ও চোর এবং চিটিংকারীদের সিসি ক্যামেরার আওতায় আনতে পর্যাপ্ত সিসি ক্যামেরা বসানোর জন্য উর্ধ্বতন কর্মকর্তার কাছে লিখিত আবেদন করেছে, বাজেট আসলেই সিসি ক্যামেরা স্থাপন করা হবে। তিনি ১ লক্ষ টাকা অসাবধনতা বশত মিসইউজ হয়েছে বলে স্বীকার করেন। এদিকে গত ৩ মাসে রংপুর প্রধান ডাকঘর থেকে টাকা উত্তোলনের পর কয়েকজনের টাকা খোয়া গেছে। কয়েকজন ছিনতাইকারীর শিকার হয়েছেন, কেউ চিটিংয়ের শিকার হয়েছে। চলতি বছরের আগষ্ট মাসে গংগাচড়ার বাসিন্দা খাদিজা বেগম ৩৫ হাজার টাকা উত্তোলন  করেন। উত্তোলনের পর ডাকঘর বারান্দায় ছিনতাইয়ের শিকার হন। পরে সিসি ক্যামেরায় ভিডিও ফুটেজ দেখতে চাইলেও অপারেটর নাই এই অজুহাতে দেখা সম্ভব হয়নি। তার মাসখানিক পর গুপ্তপাড়ার রেখা রানী নামে এক মহিলা ডাকঘর থেকে ৪২ হাজার টাকা উত্তোলন করে ছিনতাইকারীর কবলে পরেন। তিনি এবং তাঁর আত্মীয়স্বজন অনেক জোর-জবরদস্তি করে ভিডিও ফুটেজ দেখেন। অফিসের সিসি ক্যামেরাগুলো শুধু কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের পর্যবেক্ষনের জন্য হওয়ায় সেখানে অপরাধী ধরা ছোঁয়ার বাহিরে থেকে যায়। এভাবে প্রতিনিয়ত টাকা ছিনতাই ও চুরির ঘটনা ঘটছে। শুধু টাকাই নয় সেখান থেকে সাইকেল, মটরসাইকেল হারানোর ঘটনাও ঘটছে।

Share Button

     এ জাতীয় আরো খবর