May 22, 2024, 10:26 am

সংবাদ শিরোনাম
পীরগাছায় আনসার দলনেতা আনিসুর রহমানের বিরুদ্ধে অনিয়ম-দুর্নীতিতে ভুক্তভোগীদের ক্ষোভ কক্সবাজারে জোড়া খুনের মামলার আসামী ৬ জন কুড়িগ্রামে জাল ভোট দিতে এসে ধরা খেলো রিকশাওয়ালা পটুয়াখালীতে মন্দিরে ডুকে ৩টি প্রতিমা ভাংচুর করেছে দুর্বৃত্বরা পটুয়াখালীতে প্রাকৃতিক দুর্যোগ বিষয়ক সচেতনতামুলক কর্মশালা অনুষ্ঠিত দৈনিক নবচেতনা পত্রিকার ৩৩তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপিত চিলমারীতে বিধি বহির্ভূতভাবে শিক্ষক প্রতিনিধি নির্বাচন স্থগিতের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন রামু উপজেলা বিএনপির তিন নেতা বহিষ্কার সুন্দরগঞ্জে দিনব্যাপী কৃষক প্রশিক্ষণ দিনাজপুরে চতুর্থ পর্যায়ে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ৩ উপজেলায় প্রতিক বরাদ্দ ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

ধর্ষণের ছবি ও ভিডিও মোবাইলে ধারণ করে টাকা আদায়

ধর্ষণের ছবি ও ভিডিও মোবাইলে ধারণ করে টাকা আদায়
কুমিল্লা ব্যুরো
কুমিল্লায় প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষণ এবং ব্ল্যাকমেইল করে টাকা আদায়ের সুনির্দিষ্ট অভিযোগ পাওয়া গেছে। কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলার ১নং কালীর বাজার ইউনিয়নে বুধুইর গ্রামের মৃত আবু তাহের মিয়ার ছেলে রকিবুল ইসলাম ওরফে রকি (২৮) একই এলাকার জনৈক সৌদি আরব প্রবাসী আপন চাচাত ভাই এর মেয়ে আরেক সৌদি আরব প্রবাসীর স্ত্রী তানিয়া (২৩) (ছদ্মনাম) কে ব্ল্যাক মেইল করে ধর্ষণ ও ধর্ষণের ছবি ও ভিডিও মোবাইলে ধারণ করে ৩/৪ বৎসর যাবত হুমকি দিয়ে ওই প্রবাসী পরিবার ও ধর্ষিতার নিকট থেকে বিভিন্ন সময় প্রায় ২০‘ভরি স্বর্ণালংকার ও নগদ ৫‘লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনার পর আবার অভিযুক্ত ধর্ষক রকিবুল ইসলাম (রকি) দু‘লক্ষ টাকার জন্য ধর্ষিতা‘কে চাপ প্রয়োগ করে। ওই টাকা না দেয়ায় অবৈধ মেলামেশার সময় ধারণকৃত অনৈতিক কর্মকান্ডের ছবি মোবাইলে মেয়ের মা বাবা এবং  ধর্ষিতা‘র স্বামী এবং এলাকার লোকজনের কাছে ছড়িয়ে দিলে ঘটনা প্রকাশ পায়। এ ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক তোলপাড় শুরু হয়। এ ঘটনার পর এলাকার স্থানীয় চেয়ারম্যান ও অন্যান্য জনপ্রতিনিধি এবং গণ্যমান্যদের অবহিত করলে চেয়ারম্যানের সহায়তায় সম্প্রতি কুমিল্লা কোতোয়ালি মডেল থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের হয়। অভিযুক্ত ধর্ষক রকি ও তার বড় ভাই হাক্কানী ওরফে ডন কে আসামী করে। মামলার পর ২নং আসামী ডন(৩০) কে গ্রেফতার করলেও গা-ঢাকা দেয় ধর্ষক রকিবুল ইসলাম (রকি)। পালিয়ে থাকা রকি মোবাইলে নানা ভাবে ওই প্রবাসী ধর্ষিতা‘র পরিবারটিকে মামলা তুলে নিতে হুমকি দিতে থাকে। অন্যথায় ওই পরিবারকে হত্যার হুমকিও প্রদান করে। মামলা তুলে না নেয়ায় ধর্ষণের ও অনৈতিক কর্মকা-ে ছবি ছড়িয়ে দেয় গোটা এলাকায়। ধর্ষক ও এলাকার চিহ্নিত লম্পট রকিকে জিঙ্গাসাবাদের জন্য মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ইন্সপেক্টর রুবেল ৫‘দিনের রিমান্ডের আবেদন করলে আদালত ২‘দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে।
জানা যায়, গত শনিবার অভিযুক্ত ধর্ষক রকি‘কে কুমিল্লা কোতোয়ালি থানাধীন নাজিরা বাজার ফাঁড়ি পুলিশ জেল হাজত থেকে রিমান্ডে আনেন। ফাঁড়ি পুলিশের আই.সি ইন্সপেক্টর রুবেল বলেন, প্রমাণাদিসহ ব্যবহৃত মোবাইল ও মেমোরিকার্ড ধর্ষক রকির স্বীকারোক্তির ভিত্তিতে তার বাড়ী থেকে উদ্ধার করে।
ভুক্তভোগী ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার ও এলাকাবাসীদের জানান, অভিযুক্ত আসামী রকি এলাকার চিহ্নিত অপরাধী ও সন্ত্রসী এবং বখাটে মাদকসেবী। তার বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ এবং মামলা রয়েছে। গ্রামের বেশকিছু মুরুব্বী অভিযোগ করে প্রতিবেদক কে জানান রকি ও তার ভাই হাক্কানী এলাকায় চুরি ছিনতাই মাদক সেবন ইভটিজিংসহ নানান অপরাধের সাথে সম্পৃক্ত। এ প্রসঙ্গে কোতোয়ালি থানাধীন নাজিরা বাজার ফাঁড়ি পুলিশের আই.সি ইন্সপেক্টর মাহমুদুল হাসান রুবেল জানান, আসামী রকি জিঙ্গাসাবাদে অভিযুক্ত ধর্ষক রকি দোষ স্বীকারসহ গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়েছে। আসামীকে রিমান্ড শেষে আগামীকাল সোমবার কোর্টে প্রেরণ করা হবে।

Share Button

     এ জাতীয় আরো খবর