May 26, 2024, 6:35 am

সংবাদ শিরোনাম
মাঝরাত্রে প্রবাসীর ঘরে ঢুকে স্ত্রীও মা কে ছুরি মেরে পালালো দুর্বৃত্তরা বগুড়ার শিবগঞ্জে জাতীয় অনলাইন প্রেসক্লাবের কমিটি গঠন: এমদাদুল আহবায়ক রবি সদস্য সচিব গাইবান্ধা প্রসক্লাব’র কমিটি গঠিত প্রধানমন্ত্রী হস্তক্ষেপ কামনা, বাগাতি পাড়ার ভূমিহীন রাবেয়া বেগমের জৈন্তাপুরে ৫১০ বোতল ফেনসিডিল সহ এক নারী আটক পটুয়াখালীতে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু এন এস আই পরিচয় দিয়ে এন এস আই এ চাকরির মিথ্যা প্রলোভনে মোটা অংকের টাকা আত্মসাৎ আটক দুই পটুয়াখালীতে প্রতিমা ভাঙচুর ও স্বর্ণের চোখ চুরি মামলার প্রধান আসামি গ্রেফতার আদমদীঘিতে হেলমেট নেই, জ্বালানি নেই কার্যক্রম শুরু কক্সবাজার সমুদ্র সৈকত থেকে অজ্ঞাত নারীর মরদেহ উদ্ধার

মিয়ানমারে সেনাবাহিনীর সমর্থনে উগ্র বৌদ্ধদের সমাবেশ

মিয়ানমারে সেনাবাহিনীর সমর্থনে উগ্র বৌদ্ধদের সমাবেশ

ডিটেকটিভ নিউজ ডেস্ক

মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর কর্মকা-কে সমর্থন জানিয়ে মিছিল ও সমাবেশ করেছে সেনা-সমর্থক ও উগ্র বৌদ্ধরা। মার্কিন বার্তা সংস্থা এপি’র প্রতিবেদনে বলা হয়, রোহিঙ্গাদের ওপর জাতিগত নিধনযজ্ঞ চালানোর কারণে যে বাহিনীর বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে তুমুল সমালোচনা চলছে, সেই সেনাবাহিনীকে সমর্থন জানিয়ে মিছিল করেছে ২ হাজারেরও বেশি মানুষ।

জাগারা নামে বিক্ষোভে অংশ নেওয়া এক উগ্র বৌদ্ধ ভিক্ষু বলেন, ‘আমি সেনাবাহিনীকে সমর্থন দেওয়ার জন্য আপনাকে আহ্বান জানাতে চাই। যদি সেনাবাহিনী শক্তিশালী হয়, আমাদের সার্বভৌমত্বও নিরাপদ থাকবে।’

রোহিঙ্গাদের অনুপ্রবেশকারী হিসেবে উল্লেখ করে নুন্ত ই নামের ৭০ বছর বয়সী এক অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য দাবি করেন, ‘একমাত্র সেনাবাহিনীই জাতীয় নিরাপত্তার সুরক্ষা দিতে পারে এবং অনুপ্রবেশকারীদের রুখতে পারে।’

২৫ আগস্ট নিরাপত্তা বাহিনীর চেকপোস্টে বিদ্রোহীদের হামলার পর ক্লিয়ারেন্স অপারেশন জোরদার করে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী। তখন থেকেই মিলতে থাকে বেসামরিক নিধনযজ্ঞের আলামত। পাহাড় বেয়ে ভেসে আসতে শুরু করে বিস্ফোরণ আর গুলির শব্দ। পুড়িয়ে দেওয়া গ্রামগুলো থেকে আগুনের ধোঁয়া এসে মিশতে শুরু করে মৌসুমী বাতাসে। মায়ের কোল থেকে শিশুকে কেড়ে নিয়ে শূন্যে ছুড়ে দেয় সেনারা। কখনও কখনও কেটে ফেলা হয় তাদের গলা। জীবন্ত পুড়িয়ে মারা হয় মানুষকে।

জাতিসংঘের নেতৃত্বাধীন ইন্টারসেক্টর কোঅর্ডিনেশন গ্রুপ- আইএসসিজি জানিয়েছে, আগস্টে সহিংসতা জোরালো হওয়ারপর থেকে এ পর্যন্ত ছয় লাখেরও বেশি রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে।

জাতিসংঘ সেনা অভিযানকে রোহিঙ্গাদের জাতিগত নিধন হিসেবে আখ্যায়িত করেছে। বিভিন্ন রাষ্ট্র প্রধান ও মানবাধিকার সংস্থা রোহিঙ্গারা গণহত্যার শিকার হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন। তবে মিয়ানমার সরকার ও সেনাবাহিনী এসব অভিযোগ অস্বীকার করে সহিংসতার জন্য পাল্টা রোহিঙ্গাদের দায়ী করেছে।

Share Button

     এ জাতীয় আরো খবর