May 28, 2024, 8:43 pm

সংবাদ শিরোনাম
রংপুর সিটির তিন মাথায় নির্মাণ শ্রমিকের মৃত্যু, ইউপি চেয়ারম্যান ও ভবন মালিকের যোগসাজসে গোপনে লাশ দাফন আদমদীঘির ধান শরিয়তপুরে উদ্ধার; গ্রেপ্তার-২ অবৈধভাবে চাঁদা উত্তোলনকালে রাজধানীর যাত্রাবাড়ী এলাকা হতে ০৬ জন পরিবহন চাঁদাবাজকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১০ মুন্সিগঞ্জ জেলার সিরাজদিখান এলাকা হতে গাঁজা ও বিদেশী পিস্তলসহ কুখ্যাত অস্ত্রধারী মাদক ব্যবসায়ী সাগর’কে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১০ মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বৈদ্যুতিক খুঁটির সাথে ধাক্কায় চালকের মৃত্যু ঘূর্ণিঝড় রেমাল এর প্রভাবে উপকুলের সতাধিক ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত কুড়িগ্রামে বেবী তরমুজের চাষে তিন মাসে আয় দেড় লাখ টাকা মাঝরাত্রে প্রবাসীর ঘরে ঢুকে স্ত্রীও মা কে ছুরি মেরে পালালো দুর্বৃত্তরা বগুড়ার শিবগঞ্জে জাতীয় অনলাইন প্রেসক্লাবের কমিটি গঠন: এমদাদুল আহবায়ক রবি সদস্য সচিব গাইবান্ধা প্রেসক্লাব’র কমিটি গঠিত

৮৫ দিনেই শ্রাবন্তীর সংসারে আগুন

৮৫ দিনেই শ্রাবন্তীর সংসারে আগুন

ডিটেকটিভ বিনোদন ডেস্ক

ভারতের বাংলা ছবির জনপ্রিয় নায়িকা শ্রাবন্তী দ্বিতীয়বার বিয়ের পিঁড়িতে বসেছিলেন ১০ জুলাই। মুম্বাইয়ের সুপার মডেল কৃষ্ণ ভিরাজের সঙ্গে বিয়ে হয় তাঁর। বছর খানেক প্রেম করার পর তাঁরা দুজন বিয়ের সিদ্ধান্ত নেন। বিয়েতে হাজির হয়েছিলেন টালিগঞ্জের অনেক তারকা। কথা ছিল, তাঁদের বিবাহোত্তর সংবর্ধনা হবে আগামি বছর। না, শেষ পর্যন্ত আর তা আয়োজন করা হলো না এই দম্পতির।

ভেঙে গেছে ভিরাজ আর শ্রাবন্তীর সংসার। কবে, কোথায় আর কী কারণে ভেঙে গেল, এ ব্যাপারে কিছুই জানাননি শ্রাবন্তী। তাঁদের একটি ঘনিষ্ঠ সূত্র সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছে, ৮৫ দিনের মাথায় তাঁদের বিবাহবিচ্ছেদ-সংক্রান্ত আইনি প্রক্রিয়া শেষ হয়েছে। তবে শ্রাবন্তী সংবাদমাধ্যমের কাছে স্বীকার করেছেন, কৃষ্ণ ভিরাজের সঙ্গে তাঁর ডিভোর্স হয়ে গেছে। বললেন, ‘আমরা দুজন মিলেই ডিভোর্সের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। বনিবনা না হলে একসঙ্গে মিথ্যা সুখে থাকার কী লাভ। কৃষ্ণ ভিরাজের বিরুদ্ধে আমার কোনো অভিযোগ নেই। আমি চাই, সে যেন ভালো থাকে।’

এর আগে শ্রাবন্তী ভারতের বাংলা ছবির প্রযোজক রাজীব বিশ্বাসকে বিয়ে করেছিলেন। তাঁদের ১২ বছরের একটি ছেলে আছে। ছেলের নাম ঝিনুক।

শ্রাবন্তী আরও বলেন, ‘আমি এখন আর ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে মাথা ঘামাচ্ছি না। নিজের কাজ আর ছেলের পড়াশোনা নিয়ে ব্যস্ত আছি। ঝিনুক এবার ক্লাস এইটে। ওর স্কুলে যেতে সুবিধে হবে বলে বেহালা থেকে বাইপাসের ধারে বহুতল ভবনে ফ্ল্যাট নিয়েছি। আমরা মা-ছেলে বেশ ভালো আছি।’

শ্রাবন্তী কি হতাশাগ্রস্ত? বললেন, ‘হতাশ হয়ে নিজের ক্ষতি করতে পারব না। কারণ, আমার ছেলে, বাবা-মা সব সময় আমায় আগলে রাখে। মাঝেমধ্যে ভাবি, এত ভালোবেসেও আমি ভালোবাসা পেলাম না। আমি খুব আবেগপ্রবণ। সংসার করতে ভালোবাসি। কিন্তু এখন মনে হয়, শুধু বর থাকলেই সংসার হবে, এমন নয়। বাবা-মা, ছেলেকে নিয়েও সংসার হয়। প্রতিটি মেয়েই চায় সংসার করতে। কিন্তু আমার কপালে যা লেখা ছিল তা-ই হয়েছে। ভবিষ্যৎ কী রকম হবে জানি না। তবে আমি আগের চেয়ে পরিণত হয়েছি।’

Share Button

     এ জাতীয় আরো খবর