May 22, 2024, 12:13 pm

সংবাদ শিরোনাম
পীরগাছায় আনসার দলনেতা আনিসুর রহমানের বিরুদ্ধে অনিয়ম-দুর্নীতিতে ভুক্তভোগীদের ক্ষোভ কক্সবাজারে জোড়া খুনের মামলার আসামী ৬ জন কুড়িগ্রামে জাল ভোট দিতে এসে ধরা খেলো রিকশাওয়ালা পটুয়াখালীতে মন্দিরে ডুকে ৩টি প্রতিমা ভাংচুর করেছে দুর্বৃত্বরা পটুয়াখালীতে প্রাকৃতিক দুর্যোগ বিষয়ক সচেতনতামুলক কর্মশালা অনুষ্ঠিত দৈনিক নবচেতনা পত্রিকার ৩৩তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপিত চিলমারীতে বিধি বহির্ভূতভাবে শিক্ষক প্রতিনিধি নির্বাচন স্থগিতের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন রামু উপজেলা বিএনপির তিন নেতা বহিষ্কার সুন্দরগঞ্জে দিনব্যাপী কৃষক প্রশিক্ষণ দিনাজপুরে চতুর্থ পর্যায়ে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ৩ উপজেলায় প্রতিক বরাদ্দ ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

রাখাইনে হিন্দু গণহত্যার অভিযোগে ২২ রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী আটক!

রাখাইনে হিন্দু গণহত্যার অভিযোগে ২২ রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী আটক!

ডিটেকটিভ নিউজ ডেস্ক

মিয়ানমারের সংঘাতপূর্ণ রাখাইন রাজ্য থেকে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর মধ্য থেকে ২২ জন সন্ত্রাসীকে আটক করা হয়েছে। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়া ও দ্য ইকোনোমিক টাইমসের প্রতিবেদনে এ খবর জানা যাচ্ছে।
সংবাদমাধ্যম দুটি তাদের প্রতিবেদনে উল্লেখ্য করেছে যে, রাখাইন রাজ্যের সাম্প্রতিক হিন্দু গণহত্যার সঙ্গে এসব রোহিঙ্গা মুসলিম সন্ত্রাসীরা জড়িত। বাংলাদেশের ভেতর থেকে ওইসব সন্ত্রাসীদের আটক করা হয়েছে বলা হলেও, কখন, কোথায় বা কারা তাদের আটক করেছে সে সম্পর্কে বিস্তারিত কোনো তথ্য দেয়নি তারা।

প্রতিবেদনে আরো বলা হয়েছে, এসব রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা এর আগে বাংলাদেশের সীমান্ত রক্ষাকারী বাহিনীর উপরও আক্রমণ চালিয়েছে। তাছাড়া, এরা পাকিস্তানের অভ্যন্তরীণ জঙ্গি অধ্যুষিত অঞ্চল থেকে বিশেষভাবে প্রশিক্ষণ নিয়ে এসেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

সম্প্রতি মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর ওয়েবসাইটে পোস্ট করা এক বিবৃতি থেকে জানা গেছে, উত্তরাঞ্চলীয় রাখাইন প্রদেশের একটি গ্রাম থেকে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা একটি গণকবর খুঁড়ে মোট আটাশটি মৃতদেহ উদ্ধার করেছে। এদের সবাই হিন্দু ধর্মাবলম্বী, বেশীরভাগই নারী।

 

উল্লেখ্য, রাখাইন রাজ্যে গত ২৫ আগস্ট সেনাবাহিনী ও পুলিশের ৩০টি চৌকিতে সমন্বিতভাবে হামলা চালানো হয়। রয়টার্সের খবরে জানানো হয়, ওই হামলায় নিরাপত্তা বাহিনীর ১২ জন সদস্য ও ৫৯ জন হামলাকারী প্রাণ হারান। পরবর্তীতে দ্য আরাকান রোহিঙ্গা সালভেশন আর্মি (এআরএসএ) নামের একটি সংগঠন ওই হামলার দায় স্বীকার করে এধরনের আরো হামলার হুমকি দেয়। দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়া ও দ্য ইকোনোমিক টাইমস।

Share Button

     এ জাতীয় আরো খবর