May 30, 2024, 8:15 pm

সংবাদ শিরোনাম
রংপুর সিটির তিন মাথায় নির্মাণ শ্রমিকের মৃত্যু, ইউপি চেয়ারম্যান ও ভবন মালিকের যোগসাজসে গোপনে লাশ দাফন আদমদীঘির ধান শরিয়তপুরে উদ্ধার; গ্রেপ্তার-২ অবৈধভাবে চাঁদা উত্তোলনকালে রাজধানীর যাত্রাবাড়ী এলাকা হতে ০৬ জন পরিবহন চাঁদাবাজকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১০ মুন্সিগঞ্জ জেলার সিরাজদিখান এলাকা হতে গাঁজা ও বিদেশী পিস্তলসহ কুখ্যাত অস্ত্রধারী মাদক ব্যবসায়ী সাগর’কে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১০ মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বৈদ্যুতিক খুঁটির সাথে ধাক্কায় চালকের মৃত্যু ঘূর্ণিঝড় রেমাল এর প্রভাবে উপকুলের সতাধিক ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত কুড়িগ্রামে বেবী তরমুজের চাষে তিন মাসে আয় দেড় লাখ টাকা মাঝরাত্রে প্রবাসীর ঘরে ঢুকে স্ত্রীও মা কে ছুরি মেরে পালালো দুর্বৃত্তরা বগুড়ার শিবগঞ্জে জাতীয় অনলাইন প্রেসক্লাবের কমিটি গঠন: এমদাদুল আহবায়ক রবি সদস্য সচিব গাইবান্ধা প্রেসক্লাব’র কমিটি গঠিত

মানিকগঞ্জে বিষপানে গৃহবধূর মৃত্যু, ২ লাখ টাকায় আপোষ

মানিকগঞ্জে বিষপানে গৃহবধূর মৃত্যু, ২ লাখ টাকায় আপোষ

ডিটেকটিভ নিউজ ডেস্ক

পারিবারিক কলহের জের ধরে চারদিন আগে বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন নুপুর বেগম (২২) নামে এক গৃহবধূ। মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে চারদিন হাসপাতালে থাকার পর মৃত্যু হয় তার। সেই লাশ হাসপাতাল মর্গে রেখে শ্বশুরের সঙ্গে দুই লাখ টাকার বিনিময়ে আপস করলেন আমিজ উদ্দিন (২৭) নামে এক স্বামী। গতকাল বুধবার দুপুরে মানিকগঞ্জের সাটুরিয়া উপজেলার ফুকুরহাটি ইউনিয়নের জান্না গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। স্থানীয়রা জানান, উপজেলার ফুকুরহাটি ইউনিয়নের রাইল্যা দক্ষিণপাড়া গ্রামের দুলাল হোসেনের মেঝো মেয়ে নুপুরের সঙ্গে একই ইউনিয়নের জান্না গ্রামের চিকুনদির ছেলে আমিজ উদ্দিনের পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই পারিবারিক কলহ ছিলো তাদের মধ্যে। এরই ধারাবাহিকতায় চারদিন আগে বিষপান করে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন ওই গৃহবধূ। এ ঘটনার পর গুরুতর আবস্থায় নুপুরকে উদ্ধার করে মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন নুপুরের শ্বশুরবাড়ি ও আশপাশের লোকজন। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে গত মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে তার মৃত্যু হয়। মারা যাওয়ার পরপরই স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বারের সহায়তায় নুপুরের বাবাকে নগদ ২ লাখ টাকা দিয়ে মৃত্যুর বিষয়ে আপস করেন। এতে করে মেয়ের বাবা ছাড়াও স্থানীয় মাতব্বরদের পেছনেও মোটা অংকের টাকা ব্যয় করেন আমিজ উদ্দিন। গতকাল বুধবার দুপুরে মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গের সামনে কথা হয় ফুকুরহাটি ইউনিয়ন পরিষদের ৬ নম্বর ওয়ার্ড মেম্বার আনিসুর রহমান আনিসের সঙ্গে। তিনি বলেন, ‘যে মারা যাওয়ার সে মারা গেছে। ওই বিষয়টি নিয়ে আর কিছুই করার নেই। মেয়ের বাবা যেন কোনো ধরনের অভিযোগ না করে এজন্যে তাকে ২ লাখ টাকা দেওয়া হয়েছে’। টাকা লেনদেনের সময় মেয়ের বাবার বাড়ি এলাকার দেলোয়র মেম্বারসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন বলেও জানান তিনি। সরেজমিনে দেখা যায়, ওই দুই ওয়ার্ডের সামনে মেম্বার ছাড়াও স্থানীয় আরও বেশ কয়েকজন গ্রাম্য মাতব্বর রয়েছেন। হাসপাতালের মর্গ থেকে মেয়ের লাশ বুঝে নেওয়ার অপেক্ষায় থাকা নুপুরের বাবা দুলাল মিয়া বলেন, ‘মেয়ে বিষপান করার খবর পেয়ে হাসপাতালে ছুটে আসি। পারিবারিক কলহের জের ধরেই মেয়ে বিষপান করেছে। তবে এ বিষয়ে আমার কোনো অভিযোগ নেই’। মেয়ে মারা যাওয়ার পরপরই মেয়ের শ্বশুর বাড়ির লোকজন ২ লাখ টাকা নগদ দিয়ে কোনো অভিযোগ না করার অনুরোধ করেছে। এর বেশি আর কিছু বলা সম্ভব নয় বলেও জানান মৃত নুপুরের বাবা দুলাল মিয়া। সাটুরিয়া থানার ওসি আমিনুর রহমান বলেন, বিষপানে আত্মহত্যা করার পর টাকা লেনদেন করে আপস করার কোনো সুযোগ নেই। তবে এ বিষয়ে লিখিতভাবে কেউ কোনো অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে অবশ্যই বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে দেখা হবে। নাম প্রকাশ না করার শর্তে নুপুরের এক প্রতিবেশী বলেন, ‘মেয়েটিকে পারিবারিকভাবে বেশ অত্যাচার-নির্যাতন করা হতো। বিষয়টি নিয়ে গ্রাম্যভাবে কয়েক বার সালিশ হয়েছে। মেয়ে বিষপান করার পর থেকে মেয়ের বাবা ওই ঘটনার উপযুক্ত শাস্তির দাবিও জানিয়েছিলেন’। ‘কিন্তু মেয়ে মারা যাওয়ার পর ২ লাখ টাকা নগদ পেয়ে সব কিছুই ভুলে গেল মেয়ের বাবা। বিষয়টি খবুই লজ্জাজনক। মাত্র ২ লাখ টাকায় মেয়ের লাশটিও বিক্রি করলো বাবা। তবে এভাবে চলতে থাকলে সামাজিকভাবে মেয়েরা আরও বেশি নির্যাতনের শিকার হবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

Share Button

     এ জাতীয় আরো খবর