May 20, 2024, 8:02 am

সংবাদ শিরোনাম
শাহপরাণ (রহঃ) থানা পুলিশের অভিযানে ১৯,৬০০ কেজি ভারতীয় চিনিসহ ০৩ জন গ্রেফতার উখিয়ায় রোহিঙ্গা শিবিরে অভিযানে ৪ আরসা সদস্য অস্ত্রসহ গ্রেফতার রাজধানীর ডেমরা এলাকা হতে আনুমানিক ছয় কোটি টাকা মূল্যমানের ৮৬০০ লিটার বিদেশী মদসহ ০৩ জন কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১০ উলিপু‌রে পাঁচ কেজি গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক কাউনিয়ায় (ব্লাস্ট) এর উদ্দোগে ধর্মীয় সম্প্রীতির উপরে আলোচনা সভা কুড়িগ্রামে ১ টাকায় ১০ টি পরিবেশ বান্ধব পাখা বিক্রি করছে ফুল জৈন্তাপুরে গভীর রাতে পুলিশের অভিযানে ৬১৫ বোতল মদ ৮ কেজী গাঁজা উদ্ধার রাজধানী ঢাকার যাত্রাবাড়ী এলাকা হতে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে ০৫ জনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১০ ক্ষেতলালে কলেজ প্রতিষ্ঠাতার মৃত্যু বার্ষিকীতে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরীতে সার্কেল হিসেবে সহকারী পুলিশ সুপার মোঃ মাসুদ রানার যোগদান

শিশুর কান্নায় পুলিশ কর্মকর্তার মাতৃত্ব

শিশুর কান্নায় পুলিশ কর্মকর্তার মাতৃত্ব

ডিটেকটিভ নিউজ ডেস্ক

বিচারাধীন মামলায় আদালতের কাঠগড়ায় দাঁড়ানো এক হাজতি মায়ের শিশুসন্তানকে বুকের দুধ খাইয়ে সাড়া ফেলেছেন এক পুলিশ কর্মকর্তা। চার মাস বয়সী ওই শিশুকে বুকের দুধ খাওয়ানোর ছবি সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে গেছে।

দ্য টেলিগ্রাফের প্রতিবেদনে বলা হয়, গতকাল শনিবার চীনের শানজি প্রদেশের এক আদালতে এই ঘটনা ঘটে। বুকের দুধ খাওয়ানো ওই পুলিশ কর্মকর্তার নাম হাও লিনা।

প্রতিবেদনে বলা হয়, চার মাস বয়সী ওই শিশুসন্তানের মা বিচারাধীন একটি মামলার হাজতি। গতকাল শনিবার তাঁকে কাঠগড়ায় তোলা হয়। সে সময় টানা কেঁদে যাচ্ছিল হাজতি ওই নারীর ছোট্ট শিশুটি। নিজেও মাÑতাই মাতৃত্ববোধ জেগে ওঠে পুলিশ কর্মকর্তা হাও লিনার। ক্ষুধার্ত ভেবে শিশুটিকে নিজের বুকের দুধ খাওয়ানোর সিদ্ধান্ত নেন তিনি। এজন্য শিশুটির মায়ের কাছে অনুমতিও নেন। শিশুটিকে বুকের দুধ খাওয়ানোর পুরো দৃশ্য ক্যামেরাবন্দী করেন হাওয়ের এক সহকর্মী। পরে এই ছবি আদালতে অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে পোস্ট করা হয়। সেখান থেকেই ছবিগুলো সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে ওঠে।

হাও লিনা বলেন, ‘কিছুতেই শিশুটির কান্না থামছিল না। আমরা উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছিলাম। আমিও নতুন মা হয়েছি। তাই বুঝতে পেরেছিলাম, শিশুটিকে ছেড়ে কাঠগড়ায় দাঁড়িয়ে কতটা উদ্বিগ্ন ছিলেন তার মা। শিশুটির কান্না থামানোর যথাসাধ্য চেষ্টা করেছি।’ পরে মায়ের কাছে অনুমতি নিয়ে বুকের দুধ খাইয়ে শিশুটির কান্না থামান হাও।

ইন্টারনেটে এই দৃশ্য প্রকাশ হওয়ায় অনেকেই প্রশংসা করেন হাওয়ের। প্রশংসায় আপ্লুত হাও বলেন, ‘আমার বিশ্বাস, পুলিশের সব কর্মকর্তারই এ রকম পদক্ষেপ নেওয়া উচিত। আমি যদি ওই হাজতি নারীর মতো একজন মা হতাম, তাহলে আশা করতাম আমার সন্তানকে কেউ একজন সাহায্য করুক।’

Share Button

     এ জাতীয় আরো খবর