February 22, 2024, 5:02 pm

সংবাদ শিরোনাম
ভোলায় ভাষা শহিদের প্রতি পুলিশ সুপারের শ্রদ্ধা নিবেদন বাংলাদেশ প্রেসক্লাব পীরগঞ্জ উপজেলার দ্বি বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত কুড়িগ্রামে ৪দিন ব্যাপী বইমেলার উদ্বোধন মাতৃভাষা শহীদের স্মরনে লক্ষ্মীপুরবাসী জগন্নাথপুরে যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন চিলমারীতে এসএসসি পরীক্ষার কেন্দ্রে প্রবেশ করতে না দেয়ায়, মোবাইল দিয়ে কর্মচারীর মাথা ফাটালেন উখিয়ায় নিখোঁজ জেলের মরদেহ উদ্ধার জমাজমি সংক্রান্ত বিরোধ, পটুয়াখালীতে মাছের ঘেরের বাঁধ কেটে দিয়েছে প্রতিপক্ষরা, ১০ লাখ টাকার ক্ষতি রংপুরে মোটর মালিক সমিতির নেতাকে লক্ষ্য করে গুলি, আটক ৩ শিমুলতলা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষকের আত্মহত্যা

অপহরণের পর ধর্ষণের হুমকি : বরিশালে চিরকুট লিখে দাখিল পরীক্ষার্থীর আত্মহত্যা

অপহরণের পর ধর্ষণের হুমকি

বরিশালে চিরকুট লিখে দাখিল পরীক্ষার্থীর আত্মহত্যা
বরিশাল প্রতিনিধি
মিথ্যে মামলা দিয়ে হয়রানিসহ অপহরণের পর ধর্ষণের অব্যাহত হুমকির মুখে অভিমান করে চিরকুট লিখে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে এক দাখিল পরীক্ষার্থী। এনিয়ে পুরো উপজেলাজুড়ে ব্যাপক তোলপাড় শুরু হয়েছে। ঘটনাটি জেলার বাকেরগঞ্জ উপজেলার কৃষ্ণকাঠী গ্রামের।
শুক্রবার সকালে নিহতের মা রাজিয়া বেগম অভিযোগ করেন, বিষয়টি ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার জন্য প্রতিপক্ষের প্রভাবশালীরা তাদের (নিহত ছাত্রীর পরিবার) এখনও বিভিন্ন ধরনের হুমকি দিয়ে আসছে। নিহত ছাত্রী তানজিলা আক্তার (১৫) উপজেলার উত্তর-পশ্চিম দুধল মৌ আহম্মদিয়া দাখিল মাদ্রাসার দাখিল পরীক্ষার্থী ছিল। সে কৃষ্ণকাঠী গ্রামের বশির আকনের কন্যা।
মৃত্যুর পূর্বে তানজিলার লেখা চিরকুট সূত্রে জানা গেছে, একই বাড়ির নুর হোসেনের কন্যাকে ধর্ষণের ঘটনায় সহায়তা করার অভিযোগে তানজিলাকে উদ্দেশ্যপ্রণেদিতভাবে তিন নাম্বার আসামি করে বিভিন্ন ধরনের হয়রানি করা হয়। এছাড়াও তানজিলাকে বিভিন্ন সময় অপমান অপদস্থ করাসহ অপহরণের পর ধর্ষণের অব্যাহত হুমকির মুখে সে মৃত্যুর পথ বেছে নিয়েছে।
নিহত তানজিলার মা রাজিয়া বেগম জানান, তার মেয়ের মৃত্যুর জন্য নুর হোসেন, তার ভাই হানিফ হাওলাদার, হানিফের স্ত্রী পিয়ারা বেগম, কন্যা সুরমা এবং তাদের সহায়তাকারী গ্রাম্য সুদি মহাজন জাকির হাওলাদার দায়ী। তিনি আরও জানান, একই বাড়ির নুর হোসেন তার মেয়ে তানজিলাকে অভিযুক্ত করে থানায় মামলা দায়ের করে। এরপর থেকেই বিভিন্ন ধরনের হয়রানি শুরু করা হয়। থানা পুলিশের তদন্তে ঘটনার সাথে তানজিলার সম্পৃক্ততা না পেয়ে ঐ মামলা থেকে পুলিশ তানজিলার নাম বাদ দিয়ে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। পরে ঐ চার্জশীটের বিরুদ্ধে নুর হোসেন আদালতে আপিল করে। আগামী রোববার ঐ মামলায় আদালতে হাজিরার তারিখ ছিল।
রাজিয়া বেগম আরও জানান, বিভিন্ন সময় নুর হোসেন তার ভাই হানিফ, পিয়ারা ও সুরমা তার কন্যা তানজিলাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে আসছিল। এছাড়া নুর হোসেন ও তার সহযোগীরা তানজিলাকে অপহরণ করে ধর্ষণের হুমকি দিয়ে আসছিল। তাদের অব্যাহত হুমকির মুখে বুধবার রাতে একটি চিরকুট লিখে রেখে পরিবারের সবার অজান্তে অভিমানী মাদ্রাসা ছাত্রী তানজিলা ঘরের পিছনের আম গাছের ডালের সাথে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে।
বাকেরগঞ্জ থানার ওসি আজিজুর রহমান জানান, খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার সকালে পুলিশ নিহত তানজিলার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেছে। ওসি আরও জানান, চিরকুটের সূত্রধরে ইতোমধ্যে পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে। এ ঘটনায় নিহতের পরিবার থেকে থানায় মামলা দায়ের করা হলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Facebook Comments Box
Share Button

     এ জাতীয় আরো খবর