July 19, 2024, 8:27 am

সংবাদ শিরোনাম
বোরহানউদ্দিন থানা পুলিশের অভিযানে ১০ হাজার ইয়াবাসহ যুবক আটক পার্বতীপুরে নব-নির্বাচিত উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও ভাই চেয়ারম্যানদ্বয়ের সংবর্ধনা রাজধানীর নিউমার্কেট এলাকা হতে জাল সার্টিফিকেট ও জাল সার্টিফিকেট তৈরীর সরঞ্জামাদিসহ ০২ জন’কে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১০ র‌্যাব-১০ এর অভিযানে মুন্সীগঞ্জের লৌহজং এলাকা হতে ইয়াবাসহ ০১ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার কক্সবাজারে ভারী বৃষ্টিপাত পাহাড় ধ্বসে নারী-শিশু নিহত পীরগঞ্জে মসজিদের দোহাই সরকারি খাস জমির গাছ কর্তন পার্বতীপুরে বীর মুক্তিযোদ্ধা সিদ্দিক হোসেন এর রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন দারুসসালাম লাফনাউট মাদ্রাসার দস্তারবন্দী নিবন্ধন ফরম বিতরণ শুরু পীরগঞ্জে নিখোঁজের একদিন পর শিশু’র লাশ উদ্ধার মাদক মামলায় ১৫ বছরের সাজাপ্রাপ্ত গ্রেফতারী পরোয়ানাভুক্ত দীর্ঘদিন পলাতক আসামী আলাউদ্দিন’কে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১০

বাংলাদেশ হারের ‘ভাইরাসে’ আক্রান্ত

বাংলাদেশ হারের ‘ভাইরাসে’ আক্রান্ত

ডিটেকটিভ স্পোর্টস ডেস্ক

৩৩৩ রানের হার দিয়ে বাংলাদেশের দক্ষিণ আফ্রিকা সফর শুরু। পরের ম্যাচে ইনিংস ও ২৫৪ রানের পরাজয়। সাকিব আল হাসান মনে করছেন, বাংলাদেশের ব্যর্থতার বীজও বোনা হয়ে যায় সেই দুই ম্যাচ। অমন বাজে দুই হারে শুরু করা অতিথিরা আর ছন্দে ফিরতে পারেনি পুরো পুরো সফরে।

নতুন আশা নিয়ে ওয়ানডে দলের সঙ্গে যোগ দিয়েছিলে সাকিব, মাশরাফি বিন মুর্তজা, নাসির হোসেন ও মোহাম্মদ সাইফ উদ্দিন। কিন্তু কোনো কাজ হয়নি। ১০ উইকেট হার দিয়ে শুরু, পরের দুই ম্যাচে যথাক্রমে ১০৪ ও ২০০ রানে হারের তেতো স্বাদ।

প্রথম টি-টোয়েন্টিতে যা একটু লড়াই করে বাংলাদেশ। হারে ২০ রানে। দুঃস্বপ্নের সিরিজ শেষ হয় শেষ টি-টোয়েন্টিতে ৮৩ রানের হার দিয়ে। ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে সাকিব জানান, হয়তো টেস্টে ব্যর্থতার রেশটাই থেকে গেছে শেষ পর্যন্ত।

“আমার মনে হয়, একটা বড় কারণ ছিল আমাদের টেস্টে ভালো না করা। ওয়ানডেতে টেস্টের সেই রেশটাই হয়তো বেশিরভাগ খেলোয়াড়ের মনে থেকেছে। তারপর যখন ওয়ানডেও ভালো হল না, তার রেশ টি-টোয়েন্টিতে এলো।”

“এটা ভাইরাসের মতো, একটা থেকে আরেকটায় এসেছে। যদি আমরা টেস্টে ভালো করতাম তাহলে আমি নিশ্চিত ওয়ানডেতে আরও অনেক ভালো করতাম।”

দক্ষিণ আফ্রিকায় বাংলাদেশের জন্য খুব কঠিন হবে এটা অনুমেয়। কিন্তু যে ক্রিকেট তারা খেলেছে সেটা অনুমান করা খুব কঠিন ছিল সাকিবের জন্যও। পরাজয় নয়, পরাজয়ের ধরনে হতাশ বিশ্বের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার।

“দেশের বাইরে অন্তত প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে আমরা পারিনি। আমার মনে হয়, এটা আমাদের হতাশার দিক। গত দুই তিন বছর দেশে এত ভালো করে আসছি যে আমরা আশা করেছিলাম যে অন্তত ভালো কিছু করব।”

“অবশ্যই হারতে পারি। খেলার মধ্যে হার-জিত থাকবে। কিন্তু লড়াইয়ের যে স্পিরিট আমাদের মধ্যে থাকে, পুরো সফরেই তার অভাব ছিল। হারের কিংবা খারাপ করার প্রবণতা থেকে আমরা আর বেরই হতে পারিনি কিংবা ঘুরে দাঁড়াতেও পারিনি।”

একটা সফরে সব ম্যাচ হারায় বাংলাদেশের ক্রিকেট পিছিয়ে গেছে এমন মনে করেন না সাকিব। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে পরের সিরিজে ভালো করে রাখতে চান উন্নতির প্রমাণ।

“এই সিরিজে আরও প্রতিদ্বন্দ্বিতা হওয়া উচিত ছিল। আমি বলব না যে আমরা হয়তো জিততে পারতাম কিংবা অন্য কিছু। কিন্তু যে ধরনের উইকেটগুলোতে আমরা খেললাম, আমাদের সবাই সামর্থ্য ছিল ভালো করার।”

“এটা ঠিক দক্ষিণ আফ্রিকার উইকেট ছিল না। খুবই ব্যাটিং সহায়ক উইকেট ছিল। বিশেষ করে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টিগুলোতে। টিভিতে দেখে মনে হয়েছে, টেস্টেও ভালো উইকেট ছিল। অনেক জিনিসই আমাদের পক্ষে ছিল। কিন্তু তারপরও আমরা ভালো করতে পারিনি।”

গত ডিসেম্বরে নিউ জিল্যান্ড সফরে গিয়ে ৮ আন্তর্জাতিক ম্যাচের সবকটিতে হেরেছিল বাংলাদেশ। এবার হার ৭ ম্যাচের সবকটিতে। সেই হারের চেয়ে এবারের হার আরও বেশি পোড়াচ্ছে সাকিবকে।

“নিউজিল্যান্ডে তিনটি ওয়ানডেতে হয়তো আমরা জেতার সুযোগ তৈরি করেছি, কিন্তু জিততে পারিনি। ওখানে যে ধরনের প্রতিদ্বন্দ্বিতা কিছু জায়গায় আমরা করেছিলাম, তা এখানে আমরা করতে পারিনি। এটাই আসলে হতাশার দিক।”

দল হিসেবে শূন্য হাতে ফিরছে বাংলাদেশ। একক কারোর নেই ধারাবাহিক ভালো খেলার উদাহরণ। মুশফিকুর রহিমের একটি সেঞ্চুরি ছাড়া সেই অর্থে প্রাপ্তির খাতা শূন্য।

“এই জায়গায় ইতিবাচক কিছু খুঁজে বের করা একটু কঠিন। কোনো কোনো জায়গায় অনেকে ভালো করেছে। কিন্তু ধারাবাহিকতার ব্যাপারটা আমাদের কারোর মধ্যে ছিল না। আমরা সেভাবে করতেও পারিনি। মুশফিক ভাই ওয়ানডেতে ভালো ব্যাটিং করেছে। রুবেল আজকের ম্যাচ বাদ দিয়ে সব দিনই ভালো বোলিং করেছে। ছোটো ছোট এইরকম অনেক অবদানের দরকার হয় দল জিততে হলে।”

কঠিন সফর শেষে ক্রিকেটাররা ব্যস্ত হয়ে পড়বেন বিপিএল নিয়ে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের এই বিরতিতে নিজেদের মানসিকভাবে দৃঢ় করার কাজে লাগাতে চান সাকিব। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে পরের সিরিজের আগে নিজেদের মানসিক ফিটনেস কাম্য জায়গায় নিয়ে যেতে চান তিনি।

“আমি বলবো না, একটা সিরিজে হারের জন্য খুব বেশি ওলট-পালট চিন্তার দরকার আছে। কারণ, বাইরে আসলে এই ধরনের ফল হবে- এটা একটু স্বাভাবিক। ফলের কথা বলছি, আমরা যে হারব এটা হয়তো একটু অনুমিতই ছিল যে ধরনের ক্রিকেট খেলে আমরা হেরেছি সেটা আমার প্রত্যাশিত নয়।”

Share Button

     এ জাতীয় আরো খবর