May 22, 2024, 11:23 am

সংবাদ শিরোনাম
পীরগাছায় আনসার দলনেতা আনিসুর রহমানের বিরুদ্ধে অনিয়ম-দুর্নীতিতে ভুক্তভোগীদের ক্ষোভ কক্সবাজারে জোড়া খুনের মামলার আসামী ৬ জন কুড়িগ্রামে জাল ভোট দিতে এসে ধরা খেলো রিকশাওয়ালা পটুয়াখালীতে মন্দিরে ডুকে ৩টি প্রতিমা ভাংচুর করেছে দুর্বৃত্বরা পটুয়াখালীতে প্রাকৃতিক দুর্যোগ বিষয়ক সচেতনতামুলক কর্মশালা অনুষ্ঠিত দৈনিক নবচেতনা পত্রিকার ৩৩তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপিত চিলমারীতে বিধি বহির্ভূতভাবে শিক্ষক প্রতিনিধি নির্বাচন স্থগিতের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন রামু উপজেলা বিএনপির তিন নেতা বহিষ্কার সুন্দরগঞ্জে দিনব্যাপী কৃষক প্রশিক্ষণ দিনাজপুরে চতুর্থ পর্যায়ে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ৩ উপজেলায় প্রতিক বরাদ্দ ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ

প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ

প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ জানিয়েছেন পল্লী গ্রুপ এর চেয়ারম্যান সোহেল রানা সুমন। তিনি এক প্রতিবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানান- বিভিন্ন জাতীয় দৈনিক ও একাধিক অনলাইন নিউজ পোর্টালে “কমলগঞ্জে সোহেল রানা সুমন কর্তৃক ভিন্ন ব্যক্তিকে মালিক সাজিয়ে জাল দলিল সৃষ্টির ঘটনা ফাস” শীর্ষক সংবাদটির প্রতি আমার দৃষ্টি আকৃষ্ট হয়েছে। আমি বাস্তবতার সাথে সামঞ্জস্যহীন এবং বস্তুনিষ্টতা বিবর্জিত এ সংবাদটির তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। সংবাদটিতে পরিবেশিত সকল তথ্যই মিথ্যা, ভিত্তিহীন, বস্তুনিষ্টতা বিবর্জিত ও উদ্দেশ্য প্রনোদিত। আমি একজন ব্যবসায়ী এবং বিভিন্ন সমাজসেবামূলক সংগঠনের সাথে জড়িত। এলাকায় এবং এলাকার বাহিরে বিভিন্ন অসহায় হতদরিদ্র লোকজনকে বিভিন্নভাবে নিজের সাধ্যমত সহায়তা করে আসছি। আমাকে সামাজিক ভাবে হেয় প্রতিপন্ন করার হীন উদ্যেশেই এলাকার একটি কু-চক্রী মহলের ইন্ধনে ষড়যন্তমূলক ভাবে কতেক দুষ্ট ব্যক্তির মাধ্যমে এ সংবাদদাতাকে মিথ্যা তথ্য দিয়ে এ মিথ্যা সংবাদ পরিবেশন করানো হয়েছে।  সংবাদে উল্লেখ করা হয়েছে, বিভাষ রঞ্জন দাসের মৌরসী সূত্রে প্রাপ্ত পরানধর মৌজার অন্তর্গত ২৯নং জেএলভূক্ত ১৬নং এসএ খতিয়ানের ১৭৬নং এসএ দাগের ১১ শতাংশ ও ১২৫নং এসএ দাগের ০২ শতাংশ এবং মখলিছ মিয়া ও দুরুদ মিয়ার ক্রয় সুত্রে মালিকানাধীন ১৩নং এসএ খতিয়ানের ১৭৬নং দাগের ১১ শতাংশ ভুমি, ভিন্ন ব্যক্তিকে মালিক সাজিয়ে দুটি দলিল রেজিষ্ট্রি করিয়ে নিয়েছি। আরও উল্লেখ করা হয়েছে- মুন্সিবাজার ইউপি চেয়ারম্যান এর স্বাক্ষর জাল করে বিভাষ রঞ্জন দাসের উত্তরাধিকারী সনদ উত্তোলন করা হয়েছে। প্রকৃত সত্য হল- গত ১৩/০৪/২০১৭ইং কমলগঞ্জ সাব-রেজিষ্ট্রারী অফিসে (দলিল নং- ১৩৮৪ ও ১৩৮৫) নম্বরের দুটি দলিল ২৯নং জেএলভূক্ত ১৩নং এসএ খতিয়ানের ১৭৬নং এসএ দাগের ৮৮ শতক ভূমি হতে ২২ শতক ভূমি আমি নিজ নামে খরিদ করি ও ১২৫নং এসএ দাগের ৪ শতক ভূমি হতে ০২ শতক ভুমি আমার পিতার নামে খরিদ করি। আমি জমি জমা সংক্রান্ত বিবাদের মীমাংসার জন্য মৌলভীবাজার দেওয়ানী কোর্টে স্বত্ত্ব মোকদ্দমা (নং ১৭৭/১৮ইং (স্বত্ত) ও ৪৮/১৮ দায়ের করি। বর্তমানে মামলাটি বিজ্ঞ আদালতে বিচারাধীন রয়েছে। জমি খরিদ করায় একটি মহল আমার কাছে মোটা অংকের চাঁদা ( টাকা) দাবি করে। তাদের দাবীকৃত টাকা দিতে অস্বীকৃতি ও তার প্রতিবাদ করায় বিভাস রঞ্জন দাশকে বিভিন্ন ভাবে ভয়ভীতি দেখিয়ে এবং তাকে জায়গার আরও অধিক মুল্যর লোভ দেখিয়ে আমার বিরুদ্ধে এলাকায় বিভিন্ন অপপ্রচার ও মৌলভীবাজার ফৌজদারি কোর্টে মামলা নং- ১৬৬/১৮ দায়ের করে। বিজ্ঞ আদালতের নির্দেশে কমলগঞ্জ থানার পুলিশ সুষ্ঠুভাবে তদন্ত কাজ সম্পন্ন করার স্বার্থে আমার ক্রয়কৃত দলিল পর্যবেক্ষণ করছেন। তাছাড়া দলিল রেজিষ্টি করতে হলে  প্রকৃত মালিক স্ব-শরীরে  সাব-রেজিষ্ট্রারী অফিসে উপস্থিত থাকতে হয়। সেখানে জালিয়াতি কি করে হল ?। এবং উত্তরাধিকারী সনদ উত্তোলন করতে হলে সংশ্লিষ্ট ইউপি সদস্য ঐ নাগরিককে সনাক্ত করলেই ইউপি চেয়ারম্যান উত্তরাধিকারী সনদ প্রদান করে থাকেন। তাই, আমি মিথ্যা, বানোয়াট, ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত উক্ত সংবাদটির তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

প্রতিবাদকারী-  সোহেল রানা সুমন,
চেয়ারম্যান, পল্লী গ্রুপ অব কোম্পানিজ,    মৌলভীবাজার।

Share Button

     এ জাতীয় আরো খবর