June 19, 2024, 10:01 pm

সংবাদ শিরোনাম
সিসিটিভির আওতায় উলিপুরঃ সম্মানিত নাগরিকদের নিরাপত্তায় পুলিশের এই প্রচেষ্টা সরিষাবাড়ীতে ৪ হাজার ব্যক্তির মাঝে এমপির চাল বিতরণ চিলমারীতে পৈ‌ত্রিক সম্প‌তি নি‌য়ে বি‌রো‌ধের জের ধ‌রে প্রায় ১৪ বছরের পুরোনো কবর ভেঙে ফেলার অভিযোগ গাজীপুর কালিয়াকৈর চান্দ্রায় ঈদ যাত্রার যাত্রীদের দুর্ভোগ কুয়াকাটা সৈকতে ভেসে এসেছে বোতলনোজ প্রজাতির মৃত ডলফিন উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে আরসার গান কমান্ডার গ্রেফতার ফরিদপুরের নগরকান্দার চাঞ্চল্যকর “ক্লুলেস ডাকাতি” ঘটনার মূলহোতা দুর্ধর্ষ ডাকাত সর্দার রবিজুল শেখ’কে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১০ রংপুরের পীরগঞ্জে ইয়াবা, জুয়ারী,ও ওয়ারেন্টের আসামী সহ ৮জনকে আটক করে পীরগঞ্জ থানা পুলিশ ভূমি সেবা সপ্তাহ উপলক্ষে জনসচেতনতা মূলক আলোচনা সভা জৈন্তাপুরে চিকনাগুল বাজারে অবৈধ পশুর হাট, সরকার হারাচ্ছে কোটি টাকার রাজস্ব

হামদর্দ এমডি ইউছুফ হারুন ভূঁইয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধ অপরাধের কল্প কাহিনীতে বিস্মিত মুক্তিযোদ্ধারা

লক্ষ্মীপুর জেলা প্রতিনিধিঃ

হামদর্দ ওয়ার্কফ বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও চীফ মোতওয়াল্লী ডঃ হাকীম ইউছুফ হারুন ভূঁইয়ার বিরুদ্ধে কুচক্রী মহলের চক্রান্ত ষড়যন্ত্রের শেষ কোথায় এ প্রশ্ন এখন লক্ষ্মীপুরের মুক্তিযোদ্ধা সহ সর্বস্তরের জনগনের। এই কুচক্রী মহল গত কয়েক মাস আগে ডঃ হাকীম ইউছুফ হারুন ভূঁইয়ার বিরুদ্ধে কল্প কথার গল্প সাজিয়ে আদালতে একটি মামলা দায়ের করে। পিবিআই এর তদন্তে সে মামলাটি অবশেষে মিথ্যা প্রমাণিত হলে আদালত উক্ত মামলাটি খারিজ করে দেয়। এ ছাড়া দুদক সহ বিভিন্ন দফতরে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ করে তাকে হয়রানির চেষ্টা চালায় এ চক্রটি। সংশ্লীষ্ট কর্তৃপক্ষ তদন্ত করে অভিযোগকারিদের অভিযোগের সত্যতা পায়নি।এই চক্রটি তাদের সর্বশেষ অস্ত্র হিসেবে ডঃ হাকীম ইউছুফ হারুন ভূঁইয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধ অপরাধের অভিযোগ তুলে তাকে সামাজিক ও মানষিক এবং প্রশাসনিক হয়রানির চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। দেশের কতিপয় অনলাইন সংবাদ মাধ্যম ও স্যাটেলাইট টিভি অতি উৎসাহিত হয়ে কিছু সঠ ব্যক্তিকে ম্যানেজ করে তাদের বক্তব্য দিয়ে কল্প কাহিনীগুলো প্রচার করে যাচ্ছে। সংবাদ মাধ্যমের এই কল্প কাহিনীর গল্প শুনে লক্ষ্মীপুরের মুক্তিযোদ্ধা  কমান্ডার, রাজনীতিবিদ, শিক্ষক, জনপ্রতিনিধি,সাংবাদিক সহ সর্বস্তরের মানুষের মধ্যে তীব্র ক্ষোভ ও অসন্তোষ বিরাজ করছে। শনিবার লক্ষ্মীপুর শহরে লক্ষ্মীপুর জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ আয়োজিত সংসদের ভারপ্রাপ্ত কমান্ডার সদ্য প্রয়াত মুক্তিযোদ্ধা জয়নাল আবদীনের স্বরণ সভায় লক্ষ্মীপুর সদর ্আসনের সংসদ সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী মুক্তিযোদ্ধা একেএম শাহজাহান কামাল ডঃ হাকীম ইউছুফ হারুন ভূঁইয়ার বিরুদ্ধে উত্থাপিত অভিযোগ মিথ্যা বলে দাবী করেন। এ সময় তিনি দেশের অন্যতম ঔষধ প্রস্তুতকারি প্রতিষ্ঠান হামদর্দ এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও চীফ মোতাওয়াল্লী ডঃ হাকীম ইউছুফ হারুন ভূঁইয়াকে হয়রানির নিন্দা জানান। এই সময় উপস্থিত মুক্তিযোদ্ধারাও তার সাথে একমত পোষণ করে বক্তব্য রাখেন। বক্তারা হামদর্দ ব্যবস্থাপনা পরিচালকের বিরুদ্ধে এই চক্রান্ত ষড়যন্ত্রকে দেশের সর্ববৃহৎ ঔষধ উৎপাদনকারি প্রতিষ্ঠানকে ধ্বংশের ষড়যন্ত্র বলেও উল্লেখ করেন।মহান মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে হামদর্দ ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডঃ হাকীম ইউছুফ হারুন ভূঁইয়ার ব্যাপারে জানতে চাইলে লক্ষ্মীপুর জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার মুক্তিযোদ্ধা হুমায়ূন কবির তোফায়েল এ প্রতিবেদককে বলেন, ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে ইউছুফ হারুন ভূঁইয়া কোন বিতর্কিত ভুমিকা পালন করেছেন এমন তথ্য তাদের জানানেই। যুদ্ধ কালে বা যুদ্ধ পরবর্তী সময়েও এ নামে কোন ব্যক্তিকে তারা ছিনতেননা এবং জানতেননা। তিনি জানান, তিনি লক্ষ্মীপুর জেলায় রায়পুর এলাকায় পাকবাহিনী ও তাদের দোষর রাজাকারদের সাথে যুদ্ধ করেছেন। সে সময় তিনি ইউছুফ হারুন ভূঁইয়া নামে কোন রাজাকারের নাম শুনেননি। তিনি জানান, রায়পুর এলাকায় মুক্তিবাহিনীর কমান্ডের দায়িত্বে ছিলেন, সুবেদার আব্দুল মতিন। আর রাজাকারের নেতৃত্বে ছিলেন, নজরুল ও সহিদ। যারা পরবর্তীতে মুক্তি বাহিনীর হাতে নির্মম ভাবে নিহত হন। আজকে সংবাদ মাধ্যমে রায়পুরের রাজাকারের কমান্ডার হিসেবে ইউছুফ হারুন ভূঁইয়ার নাম ও তার বিরুদ্ধে হত্যা সহ নানা অভিযোগের কল্প কথা দেখে তিনি সত্যি বিস্মিত। তিনি জানান ডঃ হাকীম ইউছুফ হারুন ভূঁইয়া মুক্তিযোদ্ধাদের নানা ভাবে সাহায্য সহায়তা করে যাচ্ছেন। হাজার হাজার মুক্তিযোদ্ধা তার কাছ থেকে কম বেশী সাহায্য সহায়তা নিয়েছেন।তার মত মুক্তিযোদ্ধা বান্ধব ব্যক্তির বিরুদ্ধে মিথ্যাচার যারা করছেন তিনি তাদের সাথে একমত নন। এ মুক্তিযোদ্ধা নেতা জানান, হাকীম ডঃ ইউছুফ হারুন ভূঁইয়ার এলাকার মুক্তিযোদ্ধা নুর মোহাম্মদ আমার কাছে এসেছিলেন আমি যেন হাকীম ইউছুফ হারুন ভূঁইয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধ অপরাধী হিসেবে বক্তব্যদেই। আমি তাকে তিরস্কার করে বিদায় করে দিয়েছি। আমি তাকে বলেছি মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে তুমিইতো ইউছুফ হারুন ভূঁইয়া থেকে বেশী সাহায্য সহায়তা নিয়েছ। তুমি তার বিরুদ্ধে আমার কাছে কি করে আসলে মিথ্যা বক্তব্য দিতে।লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার মাহবুব এর কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, হামদর্দ এমডি ইউছুফ হারুন ভূঁইয়ার বাড়ি লক্ষ্মীপুর সদরে। তিনি নিজ এলকা ছেড়ে রায়পুর গিয়ে অকারেন্স করবেন কেন? তিনিতো তার নিজ এলকায় করার কথা ছিল। তিনি জানান, হামদর্দ এমডি ইউছুফ হারুন ভূঁইয়া রাজকার কমান্ডার ছিলেন, বা কোন অকারেন্স করেছেন এমন কথা তিনি এর আগে কখনো শুনেননি। যুদ্ধ অপরাধ ট্রাইব্যুনাল এর তদন্ত কর্মকর্তা তার কাছে জানতে চাইলে তিনি তাকেও একই কথা বলেছেন।লক্ষ্মীপুরের মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস সংগ্রাহক ও মুক্তিযোদ্ধা সাবেক শিক্ষক সামছুল ইসলাম চৌধুরী জানান, তিনি লক্ষ্মীপুর জেলার মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযুদ্ধের সকল ইতিহাস সংগ্রহ করেছেন। ইতিমধ্যে তা বই আকারে প্রকাশ করার প্রস্তুতি নিয়েছেন। রায়পুর এলাকায় তিনি একাধিক অভিযানে সক্রিয় অংশ নিয়েছেন। তিনি সহ লক্ষ্মীপুরের মুক্তিযোদ্ধারা রায়পুর এল এম হাই স্কুলে পাকবাহিনীর ক্যাম্প আক্রমনে অংশ নিয়েছেন সে আক্রমন চলাকালে পাক বাহিনীর গুলিতে তার সাথী লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার বাঙ্গাখাঁ ইউনিয়নের বাঙ্গাখাঁ গ্রামের বাসিন্দা মুক্তিযোদ্ধা আবুল বাশার বাসু শহীদ হয়েছেন। রায়পুরে রাজাকার কমান্ডার হিসেবে তিনি নজরুল ও শহীদের নাম শুনেছেন। যুদ্ধকালীন ও যুদ্ধের পরবর্তীতে তিনি ইউছুফ হারুন ভূঁইয়া নামে কোন রাজাকার কমান্ডার বা রাজাকারের নাম শুনেননি।অপর দিকে ইউছুফ হারুন ভূঁইয়ার বিরুদ্ধে সংবাদ মাধ্যমে বক্তব্য দেওয়া রায়পুরের গাজী নগরের বাসিন্দা বীর মুক্তিযোদ্ধা ইছমাইল তরফদারের সাথে শনিবার তার কথামত বিভিন্ন স্থানে গিয়েও স্বাক্ষাৎ করা সম্ভব হয়নি। তিনি সাংবাদিকদের এড়িয়ে যান। রোববার সকালে তার ব্যক্তিগত মোবাইল ফোনে অবশেষে তার বক্তব্য জানাযায়। রায়পুরে রাজকার ও মুক্তিবাহিনীর কমান্ডার কে কে ছিলেন? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, রাজকার কমান্ডার ছিলেন, নজরুল আর মুক্তিযোদ্ধা সিভিলিয়ানদের কমান্ডার ছিলেন বকুল চৌধুরী আর সেনা মুক্তিযোদ্ধাদের কমান্ডার ছিলেন সুবেদার আব্দুল মতিন। ইউছুফ হারুন ভ্ূঁইয়ার কোন ভুমিকা সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি জানান, ইউছুফ হারুন ভূইয়া ৭১ সলে রায়পুর আলীয়ার ছাত্র ছিলেন। তিনি কেরোয়াতে লজিং থাকতেন। এর বাইরে তিনি কোন কথা বলতে রাজি হননি। তিনি জানান, একদিন সময় করে আপনারা সকল সাংবাদিক নিজাম পাঠান ও আমাদের নিয়ে বসে আমাদের বক্তব্য নেন। আমরা পৃথক পৃথক বক্তব্য দিবনা।
এ দিকে রায়পুরে মুক্তিযুদ্ধে সক্রিয় অংশ নিয়েছেন এমন কয়েকজন বীর মুক্তিযোদ্ধার সাথে আলাপকালে তারা জানান, ইউছুফ হারুন ভূঁইয়া নামে কোন রাজাকার কমান্ডার নয় শুধু কোন রাজাকারও ছিল বলে তাদের জানা নেই। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এ মুক্তিযোদ্ধারা দাবী করেন, যারা আজকে সংবাদ মাধ্যমে ইউছুফ হারুন ভূঁইয়ার নামে মিথ্যাচার করছেন তাদের চরিত্র আগে খুঁজে দেখুন। তাদের কারো কারো কাছে মুক্তিযোদ্ধারাও নির্যাতনের শিকার হচ্ছে। এই অসাধু লোভী লোকগুলো আজ কোন লোভে পড়ে রাজকার কমান্ডার ও রাজাকারদের নাম বাদ দিয়ে নিরপরাধ একজনকে রাজাকার কমান্ডার বানিয়ে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিকৃত করছেন। মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিকৃত করার জন্য আগে তাদের বিচার হউক।
রায়পুর শহরের উত্তর দেনায়েত পুর গ্রামের রাজাকার ফিরোজ মেম্বারের সাথে আলাপকালে তিনি জানান, ইউছুফ হারুন নামে কোন ব্যক্তি রাজাকার দুরে থাকুক আজ পর্যন্ত তাকে স্বচক্ষে দেখিনি।৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে রায়পুর শহরে কুলির কাজ করতেন দেনায়েত পুরের বাসিন্দা ওজি উল্যাহ, তিনি জানান, রায়পুর তহশীল অফিস ও আলীয়া মাদ্রাসায় ছিল রাজাকার ক্যাম্প, এল এম হাই স্কুলে ছিল সেনা ক্যাম্প, কুলির কাজ করার সুবাধে আমাদের সব ক্যাম্পেই যেতে হতো। মাল উঠানামা করতে হতো। রাজাকার কমান্ডার ছিল সায়েস্তা নগরের নজরুল আর পশ্চিম কেরোয়া গ্রামের তদার বাড়ির সহিদ। তিনি বেশ কয়েকজন রাজাকার ও তাদের কর্মকান্ড তুলে ধরে বলেন এসব আমার নিজ চোখে দেখা। কিন্ত ইউছুফ হারুন ভূঁইয়া নামে কোন রাজাকারের নাম আজ প্রথম শুনলাম। এ নামে ৭১ সালে কোন রাজাকার রায়পুরে ছিলনা। আমি আজ মরতে বসেছি মিথ্যা কথা বলতে পারবনা।রায়পুর পৌর ২নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি আব্দুল মোতালেব জানান, আমরা দেখেছি শুনেছি রায়পুরে রাজাকার কমান্ডার ছিল নজরুল এখন নতুন নাম শুনলাম। কেউ স্বার্থ সিদ্ধির জন্য এমন কথা বললেও আমি মিথ্যা বলতে পারবনা। ইউছুফ হারুন ভূঁইয়া রায়পুরের রাজাকার কমান্ডার ছিলনা বা রাজাকার ছিলনা। এটা আমি জোর গলায় বলতে পারি।লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার উত্তর জয়পুর ইউনিয়নের জয়পুর গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা নুর মোহাম্মদ এ প্রতিবেদককে জানান, কয়েকদিন আগে আতরাম বাড়ির মুক্তিযোদ্ধা নুর মোহাম্মদ চ্যানেল ২৪ এর সাংবাদিক সহ আমার বাড়িতে এসেছেন হাকীম ইউছুফ হারুন ভূঁইয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধ অপরাধী ছিলেন মর্মে বক্তব্য দেওয়ার জন্য আমি তাকে বলেছি আমার পক্ষে মিথ্যা বলা সম্ভব হবেনা। চ্যানেল ২৪ এর সাংবাদিকরা আমার বক্তব্য ভিডিও করে নিয়েছে আমি তাদের স্পষ্ট বলেছি হাকীম সাহেব স্বাধীনতা বিরোধী ছিলেননা। ৭১ সালে আমি আমাদের কমান্ডার আওম শফির নির্দেশে হাকীম ইউছুফ হারুন ভূঁইয়ার বাড়িতে থেকে বেশ কিছুদিন ওই এলাকায় পাকবাহিনী ও রাজাকারদের গতিবিধির উপর নজরদারি করেছি। হাকীম সাহেবের নির্দেশে তার পরিবার আমাকে থাকা খাওয়া এবং আমার গোপনীয়তা রক্ষা এবং কাজে সহায়তা করেছে। এখন দেখি টিভিতে আমার সেই বক্তব্য নেই। টিভি সাংবাদিকরা আমার প্রতিবেশী জেলা মুকিযোদ্ধা সংসদের ডেপুটি কমান্ডার মজিবুল হকের বক্তব্যও নিয়েছিল। কিন্তু এখন দেখি তার বক্তব্যও টিভিতে দেখানো হয়নি। এ দিকে লক্ষ্মীপুরের বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল খায়েরের রচিত মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক বইয়ে লক্ষ্মীপুরের রাজাকারদের তালিকা তুলে ধরা হলেও কোথাও ইউছুফ হারুন ভূঁইয়ার নাম খুঁজে পাওয়া যায়নি।এ দিকে তথ্য অনুসন্ধানে জানাযায়, ইউছুফ হারুন ভূঁইয়া ৬৯ সালে রায়পুর আলীয়াতে কামিল অধ্যয়ন করেন। ৭০ সালে তিনি ফেনীতে টিসার্স ট্রেনিং ইনষ্টিটিউটে অধ্যয়ন করেন। ৭১ সালে তিনি ঢাকার তেওগাঁও থানায় কর্মরত ছিলেন। ৭১ সালের বাতিল হওয়া কামিল পরীক্ষা তিনি ৭২ সালে দিয়ে কামিল পাশ করেন। ৭২ সালে পরীক্ষা হলেও কাগজপত্রে তা ৭১ সাল লেখা থাকায় কুচক্রী মহল এটাকে হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহারের ব্যর্থ চেষ্টা চালায়।লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল কাশেম চৌধুরী ইউছুফ হারুন ভূঁইয়াকে নিয়ে কুচক্রী মহলের চক্রান্তের নিন্দা জানান। উত্তর জয়পুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বেল্লাল হোসেন বলেন, আমাদের এলাকার সন্তান আমরা জানিনা হামদর্দ এমডি স্বাধীনতা বিরোধী ছিলেন, রায়পুরের যারা তাকে ছিনেনা জানেনা তারা তার বিরুদ্ধে মিথ্যা কল্প কাহিনী রটাচ্ছে এটা দুঃখ জনক। এই চক্রান্ত ষড়যন্ত্র হামদর্দকেই ধ্বংস করার জন্য করা হচ্ছে।  এছাড়াও আজ ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ (সোমবার) লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার ০৯ নং উত্তরজয়পুর ইউনিয়নের মুক্তিযোদ্ধা এবং সাধারন জনগণ হামদর্দ এমডি ইউছুফ হারুন ভূঁইয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধ অপরাধের কল্প কাহিনীর বিরুদ্ধে ০৯  উত্তরজয়পুর ইউনিয়ন পরিষদ এর সামনে প্রতিবাদ ও মানববন্ধন করে। লাখ লাখ মানুষের জীবন জীবিকার হাতিয়ার হামদর্দ ও এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডঃ হাকীম ইউছুফ হারুন ভূঁইয়াকে কুচক্রী মহলের হাত থেকে রক্ষায় প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন তিনি।

প্রাইভেট ডিটেকটিভ/১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯/ইকবাল

Share Button

     এ জাতীয় আরো খবর