January 17, 2022, 3:22 am

শিরোনাম :
মোংলা-ঘোষিয়াখালী চ্যানেলের নাব্যতা রক্ষায় খননকৃত মাটি ফেলতে জমি অধিগ্রহণই ভরসা ঝালকাঠিতে মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় বৃদ্ধা খুন ! ছেলেকে স্কুলে ভর্তি করাতে এসে বাবা হলেন লাশ! বরিশালে বাবুগঞ্জে ওসি’র তদারতিতে ৪৮ ঘন্টার মধ্যে গৃহবধূ মরিয়ম হত্যার আসামী গ্রেপ্তার সিলেটের পুলিশ কমিশনার নিশারুল আরিফের সফল কার্যক্রম! র‌্যাব-১০ এর অভিযানে ঢাকার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ এলাকা হতে দেশীয় অস্ত্র ও ইয়াবাসহ ডাকাত দলের ০৭ সদস্য গ্রেফতার মৌলভীবাজার গাঁজাসহ মাদক কারবারি আটক কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে বিপুল পরিমাণ গাঁজাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার সুন্দরগঞ্জে এমজেবি-জেজেবি কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে মানববন্ধন শশুরের আত্মহত্যায় প্ররোচিত মামলায় জামাই আটক কুলাউড়া সরকারি কলেজের শিক্ষার পরিবেশের উন্নয়নে কাজ করে যাব’- মোহাম্মদ আবু জাফর রাজু হিলিতে ভিওআইপি ব্যবসা করার অপরাধে আটক-১ ইয়ুথনেট ফর ক্লাইমেট জাস্টিস জাফলং ইউনিটের জলবায়ু ধর্মঘট জনবান্ধব ইউএনও’র কর্মপরিকল্পনায় বদলে গেছে ‘তানোর’ হিলিতে ভিওআইপি ব্যবসা করার অপরাধে আটক-১ মাদ্রাসার প্রভাষকের উপর অতর্কিত সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন সড়ক পারাপারে বিদ্যালয়ের সম্মুখে জেব্রা ক্রসিং দেয়ার দাবি শিক্ষার্থীদের কুড়িগ্রামে ডায়রিয়া ওয়ার্ডে বেড সংখ্যার ৫ গুণ রোগী কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের সকল শিক্ষার্থীদের করোনাভাইরাস প্রতিরোধী টিকা বাধ্যতামূলক

রায়ের অনুলিপি পেতে যেন ঘুরতে না হয়

Spread the love

ডিটেকটিভ ডেস্কঃঃ

রায়ের পর অনুলিপি পেতে বিচারপ্রার্থীদের যেন আদালতের বারান্দায় ঘুরতে না হয় সেজন্য সংশ্লিষ্টদের সতর্ক থাকতে বলেছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। শনিবার বিকেলে সুপ্রিম কোর্ট দিবসের আলোচনা সভায় যোগ দিয়ে, বিচারিক কর্মকাণ্ড ডিজিটাল করার তাগিদও দেন তিনি।

সুপ্রিম কোর্ট দিবসে সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসনের আলোচনা সভায় বঙ্গভবন থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হন রাষ্ট্রপতি।

নিজ বক্তব্যে রাষ্ট্রপতি বলেন, সরকার বিচার বিভাগের স্বাধীনতায় দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করে এবং বিচারকদের সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধির জন্য আন্তরিক প্রয়াস চালিয়ে যাচ্ছে।

“কিন্তু বিচারকদের খেয়াল রাখতে হবে, মামলার রায় হওয়ার পর রায়ের কপি পাওয়ার জন্য বিচারপ্রার্থীদের যেন আদালতের বারান্দায় ঘোরাঘুরি করতে না হয়।”

তথ্য প্রযুক্তির প্রসার এবং আদালত ব্যবস্থাপনায় এর সম্ভাবনা তুলে ধরে রাষ্ট্রপতি বলেন, তথ্যপ্রযুক্তির সমস্ত সুবিধা ব্যবহার করে মামলা ব্যবস্থাপনায় গতিশীলতা আনতে হবে। করোনাকালে ভার্চুয়াল পদ্ধতিতে বিচার কার্যক্রম পরিচালনার মাধ্যমে উচ্চ আদালত ও অধস্তন আদালতের বিচারক ও আইনজীবীগণ বিচারপ্রার্থী জনগণের ন্যায়বিচার নিশ্চিতকরণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে।

মামলা দায়ের থেকে রায় ঘোষণা পর্যন্ত আদালতের বিচারিক কর্মকাণ্ড ডিজিটালি সংরক্ষণের তাগিদ দেন রাষ্ট্রপতি।

তিনি বলেন, সুপ্রিম কোর্ট যেহেতু ‘কোর্ট অব রেকর্ড’ সেহেতু এর সকল নথিকে ডিজিটাল নথিতে পরিণত করার উদ্যোগ নিতে হবে। মামলা দায়ের থেকে রায় ঘোষণা পর্যন্ত সমস্ত কার্যক্রমকে ডিজিটাল পদ্ধতিতে সংরক্ষণের ব্যবস্থা করাও জরুরি।

রাষ্ট্রপতি বলেন, দেশ, জনগণ ও সংবিধানের প্রতি দায়বদ্ধ থেকে বিচারকরা তাদের মেধা ও মনন প্রয়োগের মাধ্যমে আইনের শাসন ও ন্যায়বিচার নিশ্চিত করবেন দেশবাসী তা প্রত্যাশা করে।

এছাড়া অনুষ্ঠানে ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠায় সুপ্রিম কোর্ট অগ্রণী ভূমিকা রাখছে জানিয়ে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, দেশে যে বিচারহীনতার সংস্কৃতি শুরু হয়েছিল তা বন্ধ করেছে সর্বোচ্চ আদালত। এছাড়া বিচার ব্যবস্থা ডিজিটালে ২ হাজার ২০০ কোটি টাকা ব্যয়ে ই-জুডিশিয়ারি বাস্তবায়নের পরিকল্পনা কথাও জানান তিনি।

শক্ত আইনি কাঠামো থাকার পরও নারীরা বিচার বঞ্চিত উল্লেখ করে, নারী ও প্রান্তিক জনগোষ্ঠির ন্যায় বিচার নিশ্চিতে সংশ্লিষ্টদের দৃষ্টিআকর্ষণ করেন স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী।

১৯৭২ সালের ১৮ ডিসেম্বর শুরু হয় উচ্চ আদালতের কার্যক্রম। ২০১৭ সালের ২৫ অক্টোবর সুপ্রিম কোর্টের ফুলকোর্ট সভার সিদ্ধান্তে এ দিন সুপ্রিম কোর্ট দিবস পালন করা হয়।

//ইয়াসিন//

Facebook Comments Box
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ