January 17, 2022, 4:50 pm

শিরোনাম :
মোংলা-ঘোষিয়াখালী চ্যানেলের নাব্যতা রক্ষায় খননকৃত মাটি ফেলতে জমি অধিগ্রহণই ভরসা ঝালকাঠিতে মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় বৃদ্ধা খুন ! ছেলেকে স্কুলে ভর্তি করাতে এসে বাবা হলেন লাশ! বরিশালে বাবুগঞ্জে ওসি’র তদারতিতে ৪৮ ঘন্টার মধ্যে গৃহবধূ মরিয়ম হত্যার আসামী গ্রেপ্তার সিলেটের পুলিশ কমিশনার নিশারুল আরিফের সফল কার্যক্রম! র‌্যাব-১০ এর অভিযানে ঢাকার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ এলাকা হতে দেশীয় অস্ত্র ও ইয়াবাসহ ডাকাত দলের ০৭ সদস্য গ্রেফতার মৌলভীবাজার গাঁজাসহ মাদক কারবারি আটক কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে বিপুল পরিমাণ গাঁজাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার সুন্দরগঞ্জে এমজেবি-জেজেবি কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে মানববন্ধন শশুরের আত্মহত্যায় প্ররোচিত মামলায় জামাই আটক কুলাউড়া সরকারি কলেজের শিক্ষার পরিবেশের উন্নয়নে কাজ করে যাব’- মোহাম্মদ আবু জাফর রাজু হিলিতে ভিওআইপি ব্যবসা করার অপরাধে আটক-১ ইয়ুথনেট ফর ক্লাইমেট জাস্টিস জাফলং ইউনিটের জলবায়ু ধর্মঘট জনবান্ধব ইউএনও’র কর্মপরিকল্পনায় বদলে গেছে ‘তানোর’ হিলিতে ভিওআইপি ব্যবসা করার অপরাধে আটক-১ মাদ্রাসার প্রভাষকের উপর অতর্কিত সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন সড়ক পারাপারে বিদ্যালয়ের সম্মুখে জেব্রা ক্রসিং দেয়ার দাবি শিক্ষার্থীদের কুড়িগ্রামে ডায়রিয়া ওয়ার্ডে বেড সংখ্যার ৫ গুণ রোগী কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের সকল শিক্ষার্থীদের করোনাভাইরাস প্রতিরোধী টিকা বাধ্যতামূলক

রংপুরে ক্লিনিকের বিরুদ্ধে শিশু বিক্রির অভিযোগ দম্পতির

Spread the love
রংপুর জেলা প্রতিনিধি ::
পীরগাছার তাম্বুলপুর এলাকার দিনমজুর আলাল মিয়া থাকেন পুরান ঢাকায়। চাকুরী করেন একটি ইঞ্জিনিয়ারিং কারখানায়।  তার স্ত্রী শারমিন আক্তার বয়স ২১ বছর। গর্ভবতী হওয়ার ছয়মাস পর আলট্রাসনোগ্রাম  করেন ঢাকায়। রিপোর্টে আসে দুটি বাচ্চা রয়েছে। এরপর পীরগাছার তাম্বুলপুর গ্রামের বাড়িতে আসার পর পীরগাছা লাইফ কেয়ার ডায়াগনষ্টিক সেন্টারে  দ্বিতীয় বার আলট্রসনোগ্রাম  করলে তখনও রিপোর্ট আসে দুটি বাচ্চা। এর পর নাজমুন নাহার ক্লিনিকে ২২ ডিসেম্বর সকালে আলট্রসনোগ্রাম  করে। সেখানে রিপোর্ট আসে দুটি বাচ্চা একটি ছেলে ও একটি মেয়ে । তারা ওজনও বলে দেয়।

তিনি জানান, ২২ ডিসেম্বর সকালে স্থানীয় দালাল চক্রের খপ্পরে পড়ে ভর্তি হন রংপুর নগরীর তিনমাথা মাহিগঞ্জ নাজমুন নাহার ক্লিনিকে সিজারিয়ান অপারেশনের জন্য। আলট্রাসনোগ্রাম রিপোর্ট অনুযায়ী রাত সাড়ে দশটায় সিজার করা হয়। মা ও শিশুর অবস্থা খারাপ বলে ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ দ্রত পাঠিয়ে দেন রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। মেডিকেলে যাওয়ার পর মেডিকেল কর্তৃপক্ষ বলেন শিশু ভাল আছে। পরে ২ / ৩ ঘন্টা থেকে তারা আবার চলে আসেন নাজমুন নাহার ক্লিনিকে। দ্বিতীয় ছেলে সন্তানের কথা বললে ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ তাদেরকে হুমকি দিয়ে বলে একটি বাচ্চা হয়েছে। সেখানে ৫দিন  অবস্থান করে এবং তাঁর দ্বিতীয় সন্তানটিকে দেয়ার অনুরোধ করে। কিন্তু খুটির জোড় নেই গরীব, অসহায় এই পরিবারের। তাই অনেক আকুতি মিনতির পরও যখন কোন উপায় হলনা  তখন সাড়ে ৮ হাজার টাকা ক্লিনিক ভাড়া দিয়ে বাড়িতে চলে যান। শারমিন আক্তার বলছেন, ছেলে সন্তানটিকে ক্লিনিকের লোকজন বিক্রি করে দিয়েছে। আমি আমার সন্তাকে ফিরে চাই। আজও সদ্য প্রস্ফুটিত ছেলে সন্তান ফিরে পাওয়ার আকুতি সেই প্রসূতি মায়ের।

স্বজন ও পাড়া প্রতিবেশি বলছেন , এর আগেও এই ক্লিনিকের উপর বাচ্চা বিক্রি ও অন্যান্য অভিযোগ রয়েছে।
স্বজনদের দাবি হতদরিদ্র এই পরিবারটির মাঝে ফেরত দেওয়া হোক ছেলে সন্তানটি। চায় স্থানীয় প্রশাসনের কঠোর হস্তক্ষেপ।

তবে এবিষয়ে ক্লিনিক কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলতে গেলে তারা কথা বলতে রাজি হননি।
রংপুরে এরকম দালাল চক্রের খপ্পরে পড়ে সর্বশান্ত হচ্ছে অনেক হতদরিদ্র সহজ সরল পরিবারের মানুষজন। চক্ষুলজ্জার অন্তরালে থাকা এসব ঘটনার যেনো আর পূর্ণাবৃত্তি না ঘটে  সেদিকে প্রশাসনের কঠোর হস্তক্ষেপের দাবি পীরগাছা তাম্বুলপুরবাসীর।

Facebook Comments Box
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ