October 25, 2021, 4:43 pm

শিরোনাম :
সুন্দরগঞ্জে স্কুলছাত্রী উদ্ধার: অপহরণকারী গ্রেপ্তার পীরগঞ্জের করিমপুর জেলে পাড়ার বাসিন্দারা স্বাভাবিক জীবনে ফিরে এসেছে যশোর সদর ২নং লেবুতলা ইউনিয়ন চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ লালপুরে নিখোঁজের ৪দিন পরে শিশু বস্তাবন্দী লাশ উদ্ধার তথ্যসন্ত্রাস ও মির্জা ফখরুলদের অপপ্রচার সাম্প্রদায়িক হামলাকারীদের রক্ষা করার অপকৌশল- আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম আসন্ন শৈলকুপা ইউপি নির্বাচনে আবাইপুর ইউনিয়নে আ’লীগের যোগ্য প্রার্থী মোক্তার আহমেদ মৃধা জনসমর্থনে এগিয়ে নোয়াখালী বিভাগ বাস্তবায়নের দাবীতে মানববন্ধন লালপুরে পুকুরে ডুবে যুবকের মৃত্যু যশোর শিক্ষাবোর্ডে আরো আড়াই কোটি টাকা জালিয়াতি ; দুদকে অভিযোগ সারাদেশে সংঘটিত সাম্প্রদায়িক হামলার প্রতিবাদে নেত্রকোনায় গণ-অনশন চিলমারীতে একটি ঘরের জন্য আবেদন রমজান আলীর দিনাজপুরের বীরগঞ্জে ১৫টি ঘরের মধ্যে ৯টি ঘরই পেয়েছে স্বচ্ছলরা ঝিনাইদহে ইজিবাইক চালক হত্যার ঘটনায় ৬ জন গ্রেফতার, ইজিবাইক ও হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত ছুরি উদ্ধার রামপালে পালিত হল জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস উপলক্ষে মৌলভীবাজার জেলা পুলিশের পথসভা লালপুরে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস পালিত শশীভূষণে থানা পুলিশের অভিযানে গাঁজা সহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার ইসলামপুরে পলবান্ধা ইউনিয়নে নৌকা প্রতীক মনোনয়ন প্রত্যাশি দানেছ আলীর গণ সংযোগ ঝিকরগাছায় নির্বাচনের মনোনয়ন ফ্রম যাচাই বাছায়ে অনেকেই বাতিল বেনাপোল দিয়ে দেশে ফিরছেন ভারতে পাচার হওয়া ১৯জন বাংলাদেশি যুবতী

বাম্পার ফলনে এবারও খুশি শার্শার পাট চাষীরা

Spread the love

বেনাপোলে থেকে এনামুলহকঃ

 

করোনাভাইরাস মহামারীর এই দুঃসময়ে পাটের বাম্পার ফলন ও ভালো দামে গত বছরের মতো এবারও সুখের স্বপ্ন দেখছেন যশোরের শার্শার চাষিরা।

প্রতিবছর বাজারে পাট ওঠা শুরু হলে দাম নিয়ে দুশ্চিন্তায় থাকেন কৃষকরা। তবে এবার মৌসুমের শুরুতেই ভালো দাম থাকায় তারা রয়েছেন ফুরফুরে মেজাজে।

গত বছর পাট বিক্রি হয়েছিল ২ হাজার ৫০০ টাকা মণ দরে। চলতি বছরের শুরুতে পাট বিক্রি হচ্ছে ২ হাজার ৩০০ টাকা মণ দরে। দাম আরও বাড়তে পারে বলে পাট ব্যবসায়ীদের ধারণা। তাই এবারও পাটে ভালো লাভের আশা করছেন কৃষকরা।

শার্শা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সৌতম কুমার শীল বলেন, উপজেলায় এ বছর ৫ হাজার ৩৮০ হেক্টর জমিতে পাটের আবাদ হয়েছে। আগামী পাঁচ থেকে সাত দিনের মধ্যে শতভাগ পাট কাটতে পারবে কৃষকরা।

তিনি বলেন, কিছুদিন আগেও খরায় কৃষক পাট জাগ দেওয়ার মতো জায়গা পাচ্ছিল না, যার কারণে তারা হতাশায় ভুগছিল। কিন্তু গত কয়েক দিনের টানা ভারি বর্ষণে খালবিল পুকুর ডোবা-জলাশয় পানিতে সয়লাব হয়ে যাওয়ায় সহজেই পাট জাগ দিতে পারছে।

“এতে সকল বাধা কাটিয়ে বাম্পার ফলন ও উপযুক্ত দাম পাওয়ায় তাদের মুখে হাসি ফুটে উঠেছে।আমাদের প্রতিনিধির সঙ্গে তাদের কথা হয়েছে।পাটচাষি ধলদা গ্রামের আব্দুল হাসেম বলেন, “দেড় বিঘে জমিতি পাট চাষ করেলাম। বিঘে প্রতি খরচ হয়েলো ১২ হাজার টাকার মতন। পাট পাইছি ১৮ মন।

“করোনায় পাটের দাম পাব কিনা তাই নিয়ে ভয় কত্তেলাম। তবে এবারগার শুরুটা ভালো। এই রকম বাজারদর থাকলি আমরা খুবই খুশি।”

শার্শার মাখলার বিলে এখন পুরোদমে পাট কাটা, পাটের জাগ (ডুবানো) দেওয়া ও আঁশ ছাড়ানোর কাজ চলছে।পাট কাটার কাজে নিয়োজিত শ্রমিক হামজের ইসলাম (৪০) বলেন, “ডাঙ্গা জমির পাট কাটা, বান্ধা আর ডুবুলি পাচ্ছি তিন হাজার টাকা বিঘে। আর বুক সমান পানিতি চার থেকে পাঁচ হাজার টাকা বিঘে পাট কাটছি।”

শিকড়ি গ্রামের দিনমজুর জাহাঙ্গীর হোসেন (৫৫) বলেন, “আমরা পাট ধুই ২০-২৫ টাকা আঁটি। প্রতিদিন ১৫-২০ আঁটি পাট ধুয়ে যা পাই তা দিয়েই আমাদের সংসার চলে।”

অপর পাটচাষি বড়আচড়া গ্রামের ইব্রাহিম (৫০) বলেন, “জমিতে বীজ বুনা থেকে শুরু করে আগাছা পরিষ্কার, কীটনাশক ও কাটা ধোয়া বাবদ প্রতি বিঘায় খরচ হয় ১৫ হাজার টাকা। যদি পাটের দাম ভালো না পাই তাহলি লোকশানে আর পাট করব না।

বেনাাপোলের একজন পাট ব্যবসায়ী আব্দুল গফুুর বলেন, “এখন আমরা ২ হাজার ৩০০ টাকা মন দরে পাট কিনছি। সপ্তাহখানেক আগে কিনেছি ২ হাজার টাকায়।”কৃষকরা এবার পাটের ভালো দাম পাবে বলে তিনি মনে করেন।

Facebook Comments Box
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ