February 29, 2024, 8:40 pm

সংবাদ শিরোনাম
উখিয়ায় চাঞ্চল্যকর হত্যাকান্ডের আসামী ১০ ঘন্টার মধ্যে গ্রেফতার কক্সবাজারে আগুনে ২১ দোকান পুড়ে ছাই ইসলামপুরে বিভিন্ন জটিল রোগে আক্রান্তদের মাঝে ধর্মমন্ত্রী চেক বিতরণ কুড়িগ্রামে ১৫ নারী কৃষককে দেড় লক্ষ টাকা বিতরণ রংপুরে গঙ্গাচড়ায় পাটচাষিদের প্রশিক্ষণ প্রদান রংপুরে মৌবন হোটেল এন্ড রেস্টুরেন্টে অসন্তোষজনক পরিবেশের কারণে জরিমানা আদায় র‍্যাব-৫, রাজশাহীর অভিযানে বাঘায় ০১ টি বিদেশী পিস্তল গুলি ও ম্যাকজিন উদ্ধার’ ০১ অস্ত্র ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার আন্তর্জাতিক সংস্থার ২৪ জন মিশন প্রধানসহ ৩৪ জন কূটনীতিক কক্সবাজারে সুন্দরগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বছর পেরিয়ে সিজার বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার জন্য সোনার মানুষ দরকার-ধর্মমন্ত্রী

বরগুনায় কলেজ ছাত্রী হত্যা: আদালতে আসামির স্বীকারোক্তি

বরগুনায় কলেজ ছাত্রী হত্যা: আদালতে আসামির স্বীকারোক্তি

ডিটেকটিভ নিউজ ডেস্ক 

বরগুনার আমতলীতে চাঞ্চল্যকর কলেজছাত্রী মালা আকতার হত্যা মামলার প্রধান আসামি আলমগীর হোসেন পলাশ গতকাল বুধবার আমতলী সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দিয়েছে। হত্যার সাথে স¤পৃক্ততার সন্দেহে গত মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১০ টার দিকে আইনজীবী মাইনুল আহসান বিপ্লব তালুকদারকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। এ ঘটনায় আমতলী থানার ওসি (তদন্ত) নুরুল ইসলাম বাদল বাদী হয়ে দুজনের নাম উল্লেখ করে চারজনের নামে মামলা করেছেন। পুলিশ অধিকতর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আইনজীবী মাইনুল আহসান বিপ্লব তালুকদারকে সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করেছে। আদালতের বিচারক মোঃ হুমায়ূন কবির রিমান্ড আবেদন শুনানীর জন্য আগামি ৩১ অক্টোবর দিন ধার্য্য করেছেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বরগুনা সদর উপজেলার গুদিঘাটা গ্রামের মোঃ মান্নান হাওলাদারের কন্যা মালা আকতারের সাথে পটুয়াখালী জেলার মির্জাগঞ্জ উপজেলার মজিদবাড়িয়া ইউনিয়নের বাসন্ডা গ্রামের আবদুল লতিফ খানের ছেলে আলমগীর হোসেন পলাশ প্রেমের স¤পর্ক গড়ে তোলে। মালা স¤পর্কে আলমগীর হোসেন পলাশের মামাতো শালিকা। সপ্তম শ্রেণিতে লেখাপড়া অবস্থায় পলাশের সাথে মালার স¤পর্ক হয়।নিহত মালা কলাপাড়া মোজাহার উদ্দিন বিশ্বাস কলেজের একাদ্বশ শ্রেণির ছাত্রী। গত রবিবার সন্ধ্যায় আলমগীর হোসেন পলাশ প্রেমিকা মালাকে নিয়ে আমতলী তার (পলাশ) আতœীয় অ্যাডভোকেট মাইনুল আহসান বিপ্লবের বাসায় বেড়াতে আসে। তিন দিন ধরে পলাশ এ বাড়ীতে অবস্থান করে। গত মঙ্গলবার মালা পলাশকে বিয়ে করার জন্য চাপ দেয়। কিন্তু পলাশ এতে রাজি হয়নি। এ নিয়ে উভয়ের মধ্যে ঝগড়া ঝাটি হয়। এক পর্যায় গত মঙ্গলবার দুপুরে আলমগীর হোসেন পলাশ মালা আকতারকে ধারালো অস্ত্র (বটি) দিয়ে কুপিয়ে মাথা, দুহাত, দুপা, গলার নিচ থেকে কোমর পর্যন্ত দুটুকরো এবং মোট সাত টুকরো করে হত্যা করে। এ সময় ওই বাসায় কেউ ছিল না। ঘাতক পলাশ লাশ সাত টুকরো করে ওই বাসার বাথরুমের মধ্যে দুটি ড্রামে ভরে লুকিয়ে রাখে। এ ঘটনায় সাথে স¤পৃক্ততার অভিযোগে বাসার মালিক আইনজীবী মাইনুল আহসান বিপ্লবকে ওইদিন রাত সাড়ে ১০ টার দিকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। আমতলী থানার ওসি (তদন্ত) নুরুল ইসলাম বাদল বাদী হয়ে ঘাতক আলমগীর হোসেন পলাশ ও আইনজীবী মাইনুল আহসান বিপ্লবের নাম উল্লেখ করে চারজনের নামে মামলা দায়ের করেছেন। গতকাল বুধবার আলমগীর হোসেন পলাশ আমতলী সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ হুমায়ূন কবিরের আদালতে ঘটনার স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দিয়েছেন। লাশের ময়নাতদন্তের জন্য বরগুনা মর্গে পাঠানো হয়েছে।নিহত মালা আকতারের মামা হাবিব বলেন, ময়না তদন্ত শেষে পুলিশ লাশ আমাদের কাছে হস্তান্তর করেছে। লাশ গুদিঘাটা গ্রামে মালা আকতারের নানার বাড়ীতে দাফন করা হবে। তিনি আরো বলেন, এ ঘটনায় আদালতে মামলা করা হবে।মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও ভারপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তা মোঃ শহিদ উল্যাহ বলেন, আসামি আলমগীর হোসেন পলাশ আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দিয়েছে। তিনি আরো বলেন, আইনজীবী মাইনুল আহসান বিপ্লবকে অধিকতর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালতে সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়েছে।

Facebook Comments Box
Share Button

     এ জাতীয় আরো খবর