January 25, 2022, 10:06 am

শিরোনাম :
যশোরে বাসের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত ঝিকরগাছায় সংবাদকর্মীর উপর হামলা ও মটরসাইকেল ভাংচুর হওয়ায় থানায় অভিযোগ মুন্ডুমালায় পুলিশের অভিযানে ৪ কেজি গাঁজা উদ্ধার, স্ত্রী আটক জগন্নাথপুরে খাল-বিল শুকিয়ে মাছ নিধন, হুমকির মুখে মাছের বংশ বিস্তার তানোরে ৪ কেজি গাঁজাসহ নারী ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার খুলনার ডুমুরিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত এক বিরামপুর থানা পুলিশ ও ট্রাফিক পুলিশের যৌথ অভিযান ঝিকরগাছায় ভ্রাম্যমান আদালতে ৩ জনকে জরিমানা এমপি নির্বাচনের পর এবার ইউপি নির্বাচনে আব্দুল হাই মাষ্টার রসিক মেয়রের সংবাদ সম্মেলন ও নিন্দা জ্ঞাপন ভারত থেকে করোনা নেগেটিভ সনদ নিয়ে দেশে ফেরার পর পরীক্ষায় ধরা পড়লো নারীর করোনা পজেটিভ প্রেমের কারণে তরুণীর আত্নহত্যা শিক্ষক মনিরের উপর হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন ফরিদগঞ্জে বিষক্রিয়ায় আক্রান্ত করে প্রবাসীর বসতঘরে দুর্ধর্ষ চুরি, আহত ২ “রাষ্ট্রপতি’র পুলিশ পদক পিপিএম-সেবা” পেলেন ফয়ছল মাহমুদ বিয়ানীবাজারে ড্রেজার কর্মীদের আ’ঘাতে নি’হত হাসিব হ’ত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন রাষ্ট্রপতি পদক পেয়েছেন পিবিআই যশোরের এসপি রেশমা শারমিন বাংলাদেশ প্রেসক্লাব গাইবান্ধা সদর উপজেলা শাখার কমিটি অনুমোদন যশোরে ৩৫ জনের শরীরে ওমিক্রন শনাক্ত

দ্বৈব নির্দেশে সুন্দরীমালাকে কিনলেন লালমনিরহাটের দুলাল

Spread the love
মৃনাল কান্তি রায় সরকার, লালমনিরহাটঃঃ
ব্যক্তিগত উদ্যোগে হাতি কিনে পালন করার ঘটনা বিরল হলেও সেটি করেছেন লালমনিরহাট সদর উপজেলার পঞ্চগ্রাম ইউনিয়নের দেউপাড়া নিবাসী দুলাল চন্দ্র রায়।
বিভিন্ন ঘটনা ও এলাকাবাসীসূত্রে জানা যায়, দুলাল চন্দ্র রায়ের স্ত্রী তুলসী রানী খুবই ধর্মভীরু প্রকৃতির। বিয়ের পর তাদের দু’টি সন্তান জন্মানোর পর থেকেই তাঁর উপর বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন দেব-দেবী ভর করা এবং বিভিন্ন দিকনির্দেশনা দেয়া শুরু করে। সেই দিকনির্দেশনা মোতাবেক তিনি বিভিন্ন রোগী বা সেবাগ্রহীতার সমস্যার সমাধান দিতেন। অনেকে দেব-দেবী প্রদত্ত পরামর্শে তুলসী রানীর দেয়া তথ্যে রোগমুক্তি বা বিভিন্ন সমস্যার সমাধানও পেতেন। দীর্ঘদিন যাবত এভাবে চলে আসছিলো। এখন দেব-দেবীর দৈব নির্দেশনা যে তাদেরকে বিভিন্ন প্রজাতির জন্তু কিনে বাড়িতে পালন করতে হবে। এই নির্দেশনা অনুসারে ইতিমধ্যে তিনি ঘোড়া, খঁড়গোশ, রাজহাঁস প্রভৃতি কিনে বাড়িতে পালন করছেন। এরই ধারাবাহিকতায় গত ১৪ই সেপ্টেম্বর খুলনা থেকে সুন্দরীমালা নামক হাতিটি ক্রয় করে নিয়ে আসেন দুলাল চন্দ্র রায়।
উক্ত এলাকার বাসিন্দা পলাশ চন্দ্র রায় দেবসিংহ বলেন, “মোটামুটি সব ধরনের দেব-দেবী’র স্থান ওনাদের বাড়িতে রয়েছে। আর বিভিন্ন সময় বিভিন্ন এলাকা থেকে লোকজন এখানে এসে মানত ও পুঁজো করে যায়। অনেকের মনোবাসনা পূর্ণ হওয়ায় নিজ উদ্যোগে কয়েকটি  মন্দিরও বানিয়ে দিয়েছেন।”
হাতির মালিক দুলাল চন্দ্র রায় বলেন, “দীর্ঘ প্রায় ১০ বছর ধরে বিভিন্ন দেব-দেবী আমার স্ত্রীর উপর ভর করা শুরু করে। প্রথমদিকে আমি এগুলো বিশ্বাস করতাম না। কিন্তু একদিন ঘটনাচক্রে দেবীমূর্তির আবির্ভাব আমার স্ত্রীর মধ্যে দৃশ্যমান হওয়ায় আমি সেদিন থেকে বিশ্বাস করতে বাধ্য হয়েছি।”
তিনি আরও বলেন, ” ঠাকুরের নির্দেশ পালন করার জন্য আমার পৈতৃক সম্পত্তি বিক্রির ১৬ লক্ষ ৪০ হাজার টাকা দিয়ে হাতিটি কিনে এনেছি।”
সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী দুলাল চন্দ্র রায়ের বাড়িতে হাতি দেখার জন্য বিভিন্ন এলাকা থেকে আগত দর্শনার্থীদের ভীড় লেগেই আছে। সকাল থেকে রাত পর্যন্ত দর্শনার্থীরা এসে হাতি দেখছেন।
Facebook Comments Box
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ