October 25, 2021, 5:38 pm

শিরোনাম :
দেশের বিভিন্ন স্থানে মন্দির ও বাড়ীঘরে হামলার প্রতিবাদে ঝিনাইদহে চিকিৎসকদের মানববন্ধন প্রি প্রেস রিলিজ (“কোভিড সংক্রমণ হ্রাস ও অসংক্রামক রোগ নিয়ন্ত্রণে বিদ্যালয়ে হেঁটে যাতায়াতের নিরাপদ পরিবেশ চাই” শীর্ষক সচেতনতামূলক কর্মসূচিতে প্রতিবেদক, ক্যামেরাম্যান ও আলোকচিত্রী প্রেরণ এবং সংবাদ প্রকাশ প্রসঙ্গে) বিএফইউজের নির্বাচনে সদস্য পদে যশোরের গোপীনাথ দাস ও শাহাবুদ্দীন আলমের জয়লাভ ভৈরবে গচ্চা গেলো প্রায় তিনশ’ কোটি টাকা শার্শায় আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মারামারিতে আহত ১০ সয়ার শ্যামগঞ্জ সপ্রাবি’র গাছ কাটার অভিযোগ কর্তৃপক্ষের নজরদারীর অভাব সুন্দরগঞ্জে স্কুলছাত্রী উদ্ধার: অপহরণকারী গ্রেপ্তার পীরগঞ্জের করিমপুর জেলে পাড়ার বাসিন্দারা স্বাভাবিক জীবনে ফিরে এসেছে যশোর সদর ২নং লেবুতলা ইউনিয়ন চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ লালপুরে নিখোঁজের ৪দিন পরে শিশু বস্তাবন্দী লাশ উদ্ধার তথ্যসন্ত্রাস ও মির্জা ফখরুলদের অপপ্রচার সাম্প্রদায়িক হামলাকারীদের রক্ষা করার অপকৌশল- আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম আসন্ন শৈলকুপা ইউপি নির্বাচনে আবাইপুর ইউনিয়নে আ’লীগের যোগ্য প্রার্থী মোক্তার আহমেদ মৃধা জনসমর্থনে এগিয়ে নোয়াখালী বিভাগ বাস্তবায়নের দাবীতে মানববন্ধন লালপুরে পুকুরে ডুবে যুবকের মৃত্যু যশোর শিক্ষাবোর্ডে আরো আড়াই কোটি টাকা জালিয়াতি ; দুদকে অভিযোগ সারাদেশে সংঘটিত সাম্প্রদায়িক হামলার প্রতিবাদে নেত্রকোনায় গণ-অনশন চিলমারীতে একটি ঘরের জন্য আবেদন রমজান আলীর দিনাজপুরের বীরগঞ্জে ১৫টি ঘরের মধ্যে ৯টি ঘরই পেয়েছে স্বচ্ছলরা ঝিনাইদহে ইজিবাইক চালক হত্যার ঘটনায় ৬ জন গ্রেফতার, ইজিবাইক ও হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত ছুরি উদ্ধার রামপালে পালিত হল জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস

জগন্নাথপুরে জলমহাল নিয়ে চাঁদাবাজি মামলায় ৩ আসামী জেলে

Spread the love

জগন্নাথপুর (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধিঃঃ
সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার কলকলিয়া ইউনিয়নের তেলিকোনা গ্রাম এলাকায় কামারখালি নদী রকম জলমহাল নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে বিরোধ দেখা দিয়েছে। এ ঘটনায় এক পক্ষের দায়ের করা চাঁদাবাজি মামলায় অপর পক্ষের ৩ জন সুনামগঞ্জ জেল হাজতে রয়েছেন।
জানাগেছে, তেলিকোনা থেকে দাস নোয়াগাঁও পর্যন্ত কামারখালি প্রথমখন্ড নামে একটি নদী রকম উন্মুক্ত জলমহাল রয়েছে। এ নদীটি প্রতি বছর মাছ আহরণের জন্য সরকারি ভাবে টোকেন ফি প্রদান করা হয়।
এ বছর টোকেন ফি প্রথায় সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসক কর্তৃক স্থানীয় ১৯৮ জন তালিকাভূক্ত মৎস্যজীবির পক্ষে মাতাব মিয়া টোকেন ফি পান। জলমহাল টোকেন ফি পাওয়ার আগে সকল মৎস্যজীবি ঐক্যবদ্ধ থাকলেও পরে তাদের মধ্যে গ্রæপিং দেখা দেয়। বর্তমানে টোকেন ফি প্রাপ্ত মাতাব মিয়া মৎস্যজীবিদের একাংশ নিয়ে জলমহাল ফিশিং করতে চাইছেন। এতে বাধা দিচ্ছেন বঞ্চিত মৎস্যজীবিদের মধ্যে শামসুল হকের লোকজন। এ ঘটনায় মাতাব মিয়া বাদী হয়ে ১৭ জনকে আসামী করে জগন্নাথপুর থানায় চাঁদাবাজি মামলা করেন। গত ২৭ সেপ্টেম্বর উক্ত মামলায় সুনামগঞ্জ আদালতে হাজিরা দিতে গেলে বিজ্ঞ আদালত আসামী শামসুল হক, নাজিম উদ্দিন ও হাবিবুর রহমানের জামিন না মঞ্জুর করে জেল হাজতে প্রেরণ করেছেন বলে নিশ্চিত করেন এ মামলার তদন্তকারি কর্মকর্তা জগন্নাথপুর থানার এসআই আবদুস ছত্তার।

Facebook Comments Box
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ