May 19, 2022, 11:40 am

দেশের একমাত্র শকুন পরির্চযা কেন্দ্রে ১৯টি শকুন অবমুক্ত করা হলো

দেশের একমাত্র শকুন পরির্চযা কেন্দ্রে ১৯টি শকুন অবমুক্ত করা হলো

দিনাজপুরের বীরগঞ্জ জাতীয় উদ্যান সিংড়া শালবনে দেশের একমাত্র শকুন উদ্ধার ও পরির্চযা কেন্দ্রে প্রায় ৫ মাস চিকিৎসা সেবা শেষে মুক্ত আকাশে ডানা মেললো ১৯ শকুন।

২ এপ্রিল শনিবার দুপুরে উক্ত শকুন অবমুক্ত অনুষ্ঠানে বগুড়া অঞ্চলের বন সংরক্ষক মোঃ আমিনুল ইসলামের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বন, পরিবেশ ও জলবায়ু পরির্বতন মন্ত্রানালয়রে অতিরিক্ত সচিব ইকবাল আব্দুল্লাহ হারুন।

শকুন উদ্ধার ও পরিচর্যা কেন্দ্রের মুখ্য গবেষক সারওয়ার আলম দিপুর পরিচালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপ প্রধান বন সংরক্ষক ও সুফল পরিচালক গোবিন্দ রায়, প্রকৃতি ও জীবন ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান এবং চ্যানেল আই এর পরিচালক মুকিদ মজুম্দার বাবু, দিনাজপুর সামাজকি বন বিভাগের বিভাগীয় র্কমর্কতা বশিরুল আল মামুন, বীরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আব্দুল কাদের প্রমুখ।

বক্তাগন বলেন, গত ২০২১ সালের নভেম্বর মাসের শুরুতে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে আটক হওয়া বিলুপ্ত প্রায় বিভিন্ন প্রজাতির শকুন উদ্ধার করে নিয়ে আসা হয় এই পরির্চযা কেন্দ্রে। এখানে চিকিৎসা সেবা দিয়ে সুস্থ করে তোলার পর শকুনদের ছেড়ে দেওয়া হয় প্রকৃতির মুক্ত হাওয়ায়। ২৬ টি শকুন উদ্ধার করা হলেও ৭টি ২/৪ দিন পরেই ছেড়ে দেওয়া হয়। ১৯ টি শকুন দীর্ঘ ৫ মাস সুস্থ করার পর আজ ছেড়ে দেওয়া হলো।

বন্যপ্রানী সংরক্ষক মোল্লা রেজাউল করিম জানান, ইন্টারন্যাশনাল ইউনয়িন ফর কনজারভশেন অব ন্যাচার (আইইউসএিন) শকুন উদ্ধার ও পরির্চযা কেন্দ্রটি উত্তর বঙ্গে প্রথম। এই প্রকল্পটির ২০১৬ সালে যাত্রা শুরু হয়। নভেম্বর মাসের মাঝামাঝি সময়ে প্রচন্ড শীতের কারণে হিমালয় হতে আসা দেশের আটটি জেলায় আটক হওয়া শকুন উদ্ধার করে চিকিৎসাসেবা দিয়ে সুস্থ করে তোলা হয়। এরপর তাদের স্বাস্থ্য পরীক্ষার পর আবার প্রকৃতিতে ছেড়ে দেওয়া হয়। বিপন্ন প্রায় শকুন রক্ষায় আমরা এই চেষ্টা অব্যাহত রেখেছি। শকুনের বংশ বিস্তার এবং এর অস্তিত্ব রক্ষায় এ প্রকল্পটি গ্রহণ করা হয়েছে।

 

মোঃ নাজমুল ইসলাম (মিলন)
দিনাজপুর প্রতিনিধি।

Facebook Comments Box
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ